আবদুল্লাহিল মাসুদের রিমান্ড না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ : বিভিন্ন সংগঠনের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

184
gb
নিজস্ব প্রতিবেদক ঢাকা ||
জিয়া পরিষদের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব, নাগরিক ফোরামের চেয়ারম্যান, আদর্শ নাগরিক আন্দোলনের অন্যতম উপদেষ্টা ও সবুজবাংলা২৪ডটকমের প্রধান সম্পাদক আবদুল্লাহিল মাসুদকে রিমান্ড আবেদন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণ।

আজ বিকালে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে শাজাহানপুর থানায় করা নির্বাচনী অফিস ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ মামলায় তাকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়।  

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়- গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১/১২ ঘটিকায় [২৭ ডিসেম্বর ২০১৮] রাজধানীর রাজারবাগ ও শাজাহানপুর এলাকা (নিকটবর্তী) থেকে তাকে আটক করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা গেছে-ঢাকা ৮ নির্বাচনী আসনের প্রার্থী রাশেদ খান মেনোনের নির্বাচনী অস্থায়ী কার্য্যালয় ভাংচুর ও আগুন দেওয়ার মিথ্যা অযুহাতে ৫দিনের রিমান্ড আবেদন করে শাজাহানপুর থানা। বিজ্ঞ আদালতে ৫ দিমের রিমান্ড আবেদন করলে আসামী পক্ষের বিজ্ঞ আইনজীবী শুনানি করার সময় বিজ্ঞ আদালতে বলেন- আসামী একজন হার্টের রোগী, হার্টে দুটি রিং বসানো, শারিরীক ভাবে অসুস্থ এবং  রিমান্ড চাওয়ার যুক্তিক কারণ নেই বিদায় বিজ্ঞ আদালত তার রিমান্ড ও জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে আসানীকে জেল হাজতে প্রেরণ করেন। 

শুনানীতে উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট মোহাম্মদ আমজাদ হোসাইন, এডভোকেট পারভেজ হোসেন, এডভোকেট মহিউদ্দিন, এডভোকেট মোঃ আল আমিন, এডভোকেট নুরুজ্জামান প্রমূখ। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন আবদুল্লাহিল মাসুদের পরিবারের পক্ষে আবদুল কাদের ও আবদুল হাকীম।

এদিকে তার আটক ও কারাগারে প্রেরণে তাৎক্ষণিক ভাবে জিয়া পরিষদের চেয়ারম্যান কবির মুরাদ এবং আদর্শ নাগরিক আন্দোলন ও জাতীয় মানবাধিকার আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি মুহম্মদ মাহমুদুল হাসান জাতীয় নির্বাচনের পূর্বে এই ধরণের ন্যাক্কারজনক আচরণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে আবদুল্লাহিল মাসুদকে দ্রুত নিঃশর্ত মুক্তির দাবী জানান।