শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্বপ্ন বাস্তবায়নে যোগ্য ব্যাক্তিকে নির্বাচিত করুন : মোস্তফা

117
gb

১৯৭১ সালের স্বাধীনতার উষা লগ্নে ১৪ ডিসেম্বর দেশের মেধাবী ও যোগ্য সন্তানদের হত্যার মধ্য দিয়ে জাতিকে মেধাশূণ্য করার ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছিল। সেই ষড়যন্ত্র আজও অব্যাহত রয়েছে। সুবিধাবাদী ও অসৎ নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত মার্কাকে ব্যাবহার করে সমাজ ও রাষ্ট্রকে ভারসাম্যহীন করে ফেলেছে। রাজনৈতিক নেতৃত্ব আজ মেধাহীন হয়ে পড়েছে। এই অবস্থায় আগামী ৩০ ডিসেম্বর মার্কা দেখে ভোট নয়, মেধাবী ও যোগ্য প্রার্থীকেই ভোট দিয়া উচিত।

 

শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ন্যাপ ডোমার উপজেলা আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে দলের মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া উপরোক্ত বক্তব্য রাখেন।

 

শুক্রবার সন্ধ্যায় নীলফামারীর ডেমোর উপজেলা কার্যালয়ে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ডোমার উপজেলা আয়োজিত আলোচনা সভায় উপজেলা যুগ্ম আহ্বায়ক বাবু জগবন্ধু রায়ের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ন্যাপ প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিষ্টার মশিউর রহমান গানি, ঢাকা মহানগর সভাপতি মো. শহীদুননবী ডাবলু, নীলফামারী জেলা যুগ্ম আহ্বায়ক ওয়াহেদুর রহমান, ডোমার উপজেলা যুগ্ম আহ্বায়ব রেজাউল ইসলাম, মো. ফিরোজ পারভেজ উজ্জল প্রমুখ।

 

গোলাম মোস্তফা ভুইয়া ৩০ ডিসেম্বর নীলফামারী ০১ তথা ডোমার-ডিমলা আসনে বাংলাদেশ ন্যাপ মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী জেবেল রহমান গানিকে “গাভী” মার্কায় ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, শহীদ বুদ্ধিজীবীদের কাঙ্খিত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় যোগ্য ব্যাক্তিদের রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। অন্যথায় আগামী বাংলাদেশ অন্ধকারের অতল গহ্বরে তলিয়ে যাবে।

 

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আবারো অগণতান্ত্রিক শক্তিকে প্রতিষ্ঠার ষড়যন্ত্র চলছে। এই ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে প্রতিহিংসার রাজনীতির বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা করতে হবে। এই জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা করতে না পারলে আগামী প্রজন্ম রাজনীতিবিদদের ক্ষমা করবে না।

 

ব্যারিষ্টার মশিউর রহমান গানি বলেন, বিজয়ের ও শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্বপ্নের বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নাই। জনগনের আকাংখিত গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় মেধাবী নেতৃত্বকে বেছে নিতে হবে।