চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের গোলাগুলি শীর্ষ মাদকব্যবসায়ী ঝন্টু ও কুক্ষাত চরমপন্থী ধুলো নিহত

223
gb

 শামসুজ্জোহা পলাশ, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি :  : চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় দুই দল মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীদের মধ্যে গোলাগুলিতে শীর্ষ মাদক ব্যাবসায়ী ঝন্টু (৪০) ও তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী ধুলো (৪৩) নিহত হয়েছে। বৃহ¯পতিবার দিবাগত রাতে উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামের মাঠে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছানোর আগেই মাদক ব্যবসায়ী ও সন্ত্রাসীরা গোলাগুলি থামিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থলে তল্লাশী করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ১১ টি মাদক মামলার পলাতক আসামী দামুড়হুদা উপজেলার দর্শনা ঈশ্বরচন্দ্রপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে ঝন্টু ও কুখ্যাত চরমপন্থী ৬ টি হত্যাসহ এক ডজনেরও বেশি মামলা পলাতক আসামী চারুলিয়া গ্রামের শমসের আলীর ছেলে ধুলোর গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করে রাতেই চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এসময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, দুই রাউন্ড গুলি, ছয়টি হাত বোমা ও তিন বস্তা ফেন্সিডিল পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে। দামুড়হুদা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুকুমার বিশ্বাস জানান, উপজেলার গোবিন্দহুদা গ্রামে দু’পক্ষের গোলাগুলি চলছে এমন খবর পেয়ে রাত একটার দিকে ওই এলাকায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানের এক পর্যায়ে গোবিন্দহুদা গ্রামের মাঠে শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী ঝন্টু ও সন্ত্রাসী ধুলোর গুলিবিদ্ধ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওসি সুকুমার বিশ্বাস আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি, দুই রাউন্ড গুলি, ছয়টি হাত বোমা ও তিন বস্তা ফেন্সিডিল পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। রাতেই মরদেহ দু’টি চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। সহকারী পুলিশ সুপার (দামুড়হুদা সার্কেল) আবু রাসেল জানান, মাদক ব্যবসার নিয়ন্ত্রণ ও নিজেদের মধ্যে বিরোধে জড়িয়ে গোলাগুলিতে ঝন্টু ও ধুলো নিহত হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। নিহত ঝন্টু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে ১১ টি মামলা রয়েছে। নিহত অপর সন্ত্রাসী ধুলো চারুলিয়ার কুখ্যাত চরমপন্থী। তার বিরুদ্ধে ৬ টি হত্যাসহ এক ডজনেরও বেশি মামলা রয়েছে বলেও পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। # #