ব্রেক্সিট চুক্তিতে সমর্থন ইইউ’র, খুশি না হলেও ইতিবাচক সবাই

71

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক//

ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রেসিডেন্ট জঁ ক্লদ ইয়ুঙ্কার ব্রাসেলসের শীর্ষ সম্মেলনে প্রবেশের মুখে নিজের অবস্থান জানিয়ে দিয়ে বলেছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) থেকে ব্রিটেনের মতো দেশের বেরিয়ে যাওয়ার মুহূর্ত একেবারেই আনন্দের নয়। দুঃখের দিন। এটা একটা ট্র্যাজেডি।

পরে বৈঠকে বসে ঐতিহাসিক ব্রেক্সিট চুক্তিতে আনুষ্ঠানিকভাবে সমর্থন দেন ইইউ নেতারা। গত রবিবার তারা একযোগে চুক্তিতে সম্মতি জানানোর পরে বল এবার থেরেসা মে’র কোর্টে। তাকে এবার এই চুক্তি নিয়ে আগামী মাসে লড়তে হবে পার্লামেন্টে।

হাউস অব কমন্সে প্রবল প্রতিরোধ তৈরির ইঙ্গিত আগে থেকেই দিয়ে রেখেছেন সাংসদরা। তাতে স্পষ্ট যে লেবার, লিবারাল ডেমোক্র্যাট, স্কটিশ ন্যাশনালিস্ট পার্টি, ডেমোক্র্যাটিক ইউনিয়নিস্ট পার্টি-সহ কনজারভেটিভ এরও কয়েকজন সাংসদ এই চুক্তির বিরুদ্ধে ভোট দেবেন।

অবশ্য ইয়ুঙ্কার মনে করেন, ব্রিটিশ সরকার পার্লামেন্টের সমর্থন পাবে বলেই মনে করি। আমিও এই চুক্তির পক্ষেই ভোট দিতাম, কারণ ব্রিটেনের পক্ষে এটাই সেরা চুক্তি।

ফ্রান্সের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী মিশেল বাহনিয়ে বলেন, আমরা বন্ধু হিসেবেই থাকব। এবার সবার দায়িত্ব নেওয়ার সময়।

ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেছেন, এই চুক্তি দেখিয়ে দিল, ইউরোপের সংস্কার প্রয়োজন। প্যারিস চায় ব্রিটেন ইইউয়ের শর্ত মেনে এগিয়ে যাক। বিনিময়ে ব্রিটেনকে ব্যবসার সহজ সুযোগ করে দেবে ফ্রান্স। ব্রিটেন যে পথ বেছে নিয়েছে, তা নিয়ে আনন্দের কিছু নেই, হতাশারও কিছু নেই। ব্রিটেন নিজের পছন্দে হাঁটতে চেয়েছে, সেটাই গুরুত্বপূর্ণ।

মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More