মহারাজা প্রস্থাবিত কাশ্মিরের সীমানা নির্ধারন ও জঙ্গি তৎপরতা বন্ধের দাবীতে লন্ডনে পাকিস্থান হাইকমিশনের সামনে কাশ্মিরীদের বিক্ষোভ

163
gb

লন্ডন থেকে মতিয়ার চৌধুরী //

১৯৪৭ সালে ভারত বিভক্তি কালে মহারাজা হাবি সিং প্রস্থাবিত কাশ্মিরের সীমানা নির্ধারণ এবং গিলগিট,বালটিস্থান ও মোজাফ্ধসঢ়;ফরাবাদ সহ জম্মু কাশ্মিরীরের বিড়াট এলাকা অন্যায়ভাবে পাকিস্থানের দখলে নেয়া এবং সাম্প্রতিক কালে পাকিস্থানী গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই এর পৃষ্টপোষকতায় গড়ে উঠা জঙ্গি সংগঠন লস্করী তৈয়বা, জয়সী মোহাম্মদ, পাকিস্থানী তালেবান ও জামাত-ঈদ দাওয়া সহ জঙ্গি সংগঠন গুলোর তৎপরতা বন্ধের দাবীতে গতকাল ২২ অক্টোবর ২০১৮ লন্ডনে পাকিস্থান হাইকমিশন ঘেরাও করে পাকিস্থানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বরাবরে স্মারক লিপি দিয়েছে জম্মু কাশ্মির ন্যাপ সহ কয়েকটি সংগঠন। সোমবার লন্ডন সময় বিকেল চারটা থেকে সন্ধ্যে সাতটা পর্যন্ত তিনঘণ্টা ব্যাপী পাকিস্তান হাইকমিশন ঘেরাও করে মিছিলি সমাবেশ করেছে শত শত বিক্ষোভকারী। জম্মু কাশ্মির ন্যাপ ইউকের সভাপতি রাজা সাজ্জাদের সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী রেজওয়ান সাদিকের পরিচালনায় জম্মু কাশ্মিরে পাকিস্তানী জঙ্গিদের তৎপরতা বন্ধ ও কাশ্মিরীরের ভুমিছেড়ে ছেড়ে দেবার দাবী জানিয়ে বক্তব্য রাখেন ইউনাইটেড কাশ্মির পিপলস ন্যাশনাল পার্টি ( ইউকেপিএনপি) প্রেসিডেন্ট রাজা সরফরাজ, কাশেম জিয়া, তানভীর আব্বাস, জুলফুকার হক, মিসেস সাজিয়া জি ডি. মিসেস সামিনা রাজন প্রমুখ। এসময় বক্তারা বলেন কাশ্মিরের মানুষ শান্তিপ্রীয় এবং ধর্ম নিরপেক্ষতায় বিশ্বাসী, অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্যি বিগত কয়েক বছর যাবাত পাকিস্তান সরকার এবং গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই’র পৃষ্টপোষকতায় পাকিস্তানী জঙ্গিরা কাশ্মিরের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে ধ্বংশাত্মক কর্মকান্ড চালানোর কারনে নীরিহ কাশ্মিরী মানুষকে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। বক্তারা বলেন রাজার প্রস্থাব ছিল কাশ্মির স্বাধীন থাকবে কোন বিভক্তি হবেনা এবং সেখানে থাকবে হাজার হাজার বছর ধরে চলে আসা ধর্মনিরপেক্ষতা, একটি ধর্মান্ধ গোষ্টী ধর্মের দোহাই দিয়ে আমাদের বিভক্ত করেছে আজাদ কাশ্মির বলতে কিছু নেই সবই জম্মু। আমরা চাই আমাদের মতো থাকতে মহারাজার প্রস্থাবনা মতে স্বাধীন কাশ্মির। পাকিস্তানের কারনে আমাদের বার বার হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। এসময় বক্তারা পাকিস্তান বিরোধী শ্লোগান নানা শ্লোগান দেয়।