চুলের ধরণই বলে দেবে আপনি সুস্থ কিনা!

305
gb

আমরা সবাই কম-বেশী নিজেদের শারীরিক সমস্যা অবহেলা করি। অনেক সময় শারীরিক সমস্যার লক্ষণ দেখা দিলেও প্রথমদিকে সেটাকে খুব একটা গুরুত্ব দিই না।

যার ফলে রোগটি মারাত্মক আকার ধারণ করার সুযোগ পায়। তাই প্রত্যেকেরই সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত। শারীরিক সমস্যার লক্ষণ সম্পর্কে জেনে রাখা উচিত।

শুধুমাত্র নিজের চুল দেখে শারীরিক সমস্যা কীভাবে চিহ্নিত করা যায় তা বোঝার জন্য রইল কয়েকটি টিপস।

১. সাধারণ ও হালকা তেলতেলে ভাব চুল
অনেকেরই একদিন চুল শ্যাম্পু দিয়ে পরিষ্কার না করলে চুলে তেলতেলে ভাব চলে আসে। সবচেয়ে সমস্যা হল মাথার ত্বকে ছোটো ছোটো ব্রণ উঠতে দেখা যায়। এই সমস্যা সাধারণত মানসিক চাপের কারণে হয়ে থাকে। এবং একটু মারাত্মকভাবে মাথার ত্বকে ব্রণের মতো উঠতে দেখা গেলে বুঝবেন আপনার দেহের টক্সিন সঠিকভাবে দূর হচ্ছে না। এই সমস্যা সমাধানের জন্য মানসিক চাপ থেকে দূরে থাকুন।

অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবার খান ও পানীয় পান করুন।

২. অতিরিক্ত রুক্ষ চুল
সাধারণত চুলের রুক্ষতা আবহাওয়া এবং অযত্নের কারণে হয়ে থাকে বলে আমরা মনে করি। কিন্তু সেই সাথে যদি খুশকির সমস্যা এবং অতিরিক্ত চুল পড়ার সমস্যা শুরু হয় তাহলে বুঝে নেবেন আপনার দেহের হরমোনের ভারসাম্য নষ্ট হয়েছে এবং আপনার দেহে প্রোটিনের অভাব হচ্ছে। এছাড়াও অতিরিক্ত শ্যাম্পু এবং চুল ভালো করে পরিষ্কার না করার কারণেও এই সমস্যা হতে পারে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে নিয়মিত পর্যাপ্ত পানি পান করুন, দেহকে হাইড্রেট রাখুন। আয়রন ও প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার রাখুন খাদ্যতালিকায়।

৩. খুব তেলতেলে এবং পাতলা চুল
অতিরিক্ত তেলতেলে চুল, পাতলা, অল্প বয়সে চুল পেকে যাওয়া এবং চুলের আগা ফাটার সমস্যা হচ্ছে দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাওয়ার লক্ষণ। এছাড়াও খাদ্যে আয়রন, জিংক, প্রোটিন এবং ভিটামিন সি এর অভাবের কারণে এই ধরণের সমস্যা বেশি দেখা দেয়। এছাড়াও অতিরিক্ত স্টাইলিং এর কারণেও এই সমস্যা হতে পারে। এর থেকে মুক্তি পেতে সুষম খাবার খান এবং অতিরিক্ত স্টাইলিংয়ের জন্য কেমিক্যাল যুক্ত প্রোডাক্ট থেকে দূরে থাকুন।