ঝিনাইদহ যুবলীগের সম্মেলন স্থগিত নেতাকর্মীদের মাঝে হতাশা

156
gb

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
আয়োজনের কমতি ছিল না। ছিল নেতাকর্মীদের মধ্যে উচ্ছাস। ব্যানার ফেষ্টুন আর প্লাকার্ডে ভরেওঠে ঝিনাইদহ শহর। ঝিনাইদহ উজির আলী স্কুল মাঠে তৈরী হয় সুবিশাল মঞ্চ ও প্যান্ডেল।সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীদের চোখের ঘুম হারাম হয়ে গিয়েছিল। আর এসবের
আয়োজন ছিল ঝিনাইদহ জেলা যুবলীগের সম্মেলনকে ঘিরে। কিন্তু আচমকা এক মৌখিকনির্দেশনায় থেমে যায় যুবলীগের সম্মেলন। সব আয়োজন মুহুর্তের মধ্যে ফিকে হয়ে যায়।উচ্ছাসিত নেতাকমীদের মধ্যে দেখা যায় হতাশা। ঝিনাইদহ জেলা যুবলীগের আহবায়ক ও
সভাপতি প্রার্থী আশফাক মাহমুদ জন জানান, ২৮ জুলাই সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিশেষকারণে তা হয়নি। তিনি বলেন সম্মেলনে ২১৭ জন ভোটার ছিল। এদিকে সম্মেলন স্থগিত হওয়ানিয়ে নানা কথাই বাজারে শোনা যাচ্ছে। কিন্তু যুক্তিসঙ্গত কোন কারণ কেও বলতে পারছে না।তবে দলীয় হানাহানি আর বিশৃংখলা হওয়ার আশংকায় সম্মেলন স্থগিত করার কথা জোরে সোরেউচ্চারিত হচ্ছে। আরেক সভাপতি প্রার্থী নুরে আলম বিপ্লব জানান, সম্মেলন সথাসময়ে হলে ভালহতো। এতে নেতকর্মীরা আরো সংগঠিত ও উজ্জীবিত হতো। তিনি বলেন কেন্দ্রের মৌখিক নির্দেশেসম্মেলন স্থগিত করা হয়েছে বলে শুনেছি। তবে এ বিষয়ে কোন চিঠি আসার কথা আমার জানা
নেই। বিষয়টি নিয়ে আরেক সভাপতি প্রার্থী শফিকুল ইসলাম শিমুল বলেন, ১২ বছর পরসম্মেলনের হতে যাচ্ছিল। কিন্তু না হওয়ায় নেতাকর্মীরা তো কিছুটা হতাশ হতেই পারে। তিনিবলেন চেয়ারম্যানের ছেলের অসুস্থতার কারণে সম্মেলন স্থগিত হয়েছে। খোজ নিয়ে জানা গেছে২০০৬ সালে সর্বশেষ জেলা যুবলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এরপর তিনমাসের জন্য গঠিত আহবায়ক কমিটি দিয়ে চলছে চার বছর।