লন্ডনে ব্রেন্টন রুপার খুনের মামলায় ৪ জনের ৬১ বছর জেল

266
gb

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক //

গত বছর ১৩ মে সংঘটিত টাওয়ার হ্যামলেটের ব্রমলী-বাই-বো এরিয়ার ব্রেন্টন রুপার হত্যা মামলার শুনানী শেষে একই এলাকার এ্যারো রোডের বাঙ্গালী ড্রাগ ডিলার মোহাম্মদ সাইদ (২৭) ও তার সহযোগীদেরকে গত ১৩ জুলাই ওল্ড বেইলির বিচারিক আদালত দোষী সাব্যস্ত করে এবং গত সোমবার তাদেরকে সর্বমোট ৬১ বছরের সাজা প্রদান করেন।প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী সাতাশ বছর বয়স্ক মোহাম্মদ সাঈকে ৩০ বছর, সাতাশ বছর বয়স্ক মনজুর আহমদকে ৯ বছর, আটাশ বছর বয়স্ক ফয়জুর রহমানকে ১০ বছর এবং আটাশ বছর বয়স্ক শাহ হাবিবুর রহমানকে ১২ বছরের জেল প্রদান করেছে।
ব্রমলী বাই বো’র এগলিং ক্লোজের ৪১ বছর বয়স্ক ব্রেন্টন রুপার জীবনের জন্য কাল হয়েছিল তার বাসার সামনে অবৈধ ড্রাগ ডিলিং এ আপত্তি জানানো। আর এ কারণেই ড্রাগ ডিলার মোহাম্মদ সাঈদ ও তার সহযোগীরা ২০১৭ সালের ১৩ই মে ব্রেন্টন রুপারকে পেছন থেকে গুলিবিদ্ধ করে এবং উপর্যুপরি পাঁচ বার ছুরিকাঘাত করে তার বাসার সামনের রাস্তায় ফেলে পালিয়ে যায় । এক ঘন্টার মধ্যে খবর পেয়ে পুলিশ তাকে বিকাল ৪টা ৩০মিনিটে ছুরিকাহত ও গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে। এয়ার এম্বুলেন্সে প্যারামেডিক এসে এক ঘন্টা প্রচেষ্টা করে ব্যর্থ হলে মি: রুপার ঘটনাস্থলে মারা যান৷
ঘটনার সাথে জড়িত মোহাম্মদ সাঈদ (২৭) বো এলাকার এ্যারো রোডে, ২৭ বছর বয়সী মানজুর আহমাদ মাইল্যান্ডে, ফয়জুর রহমান (২৮) স্টেপনি গ্রীনে এবং শাহ মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান, ড্যাগেন হামের বাসিন্দা ।
জানা যায় মিঃ রুপার হত্যাকাণ্ডের পরদিন মোহাম্মদ সাঈদ ও শাহ হাবিবুর রহমান দেশের বাহিরে চলে গিয়েছিল। তবে পুলিশ সাঈদ, মনজুর ও ফয়জুরকে ব্রেন্টন হত্যায় জড়িত হিসেবে ২০১৭ সালের ২৪শে জুন গ্রেফতার করে। একই অভিযোগে অভিযুক্ত শাহ হাবিবুর রহমানকে ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার কৃত উল্লেখিত চার জনের বিরুদ্ধে ব্রেন্টন রুপার হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকা আদালতে প্রমাণিত হয়েছিল।
ইনভেস্টিগেশন অফিসার ডিটেকটিভ ইন্সপেক্টর ডেন মি: রুপার হত্যাকাণ্ডকে আবাসিক এলাকায় দিনের আলোতে ছুরিকাঘাত ও গুলি করে হত্যা এক নির্লজ্জ আক্রমণ বলে অভিহিত করেছেন। তিনি এই হত্যাকাণ্ডে স্বেচ্ছায় সাক্ষ্য প্রমাণ প্রদানকারীদেরকে ধন্যবাদ জানান। মি: রোপারের প্রতিবেশীরা তাকে একজন হিতৈষী ও পরোপকারী হিসেবে উল্লেখ করে বলেন তার মৃত্যুতে কমিউনিটি একজন ভাল ও নির্ভীক সমাজ কর্মীকে হারালো।