সাতক্ষীরার আশাশুনির হাজীপুরে প্রতারক চক্রের হামলায় এক গৃহবধূ নিহত, আটক দুই প্রতারক

312
gb

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:
সাতক্ষীরার আশাশুনিতে প্রতারক চক্রের হামলায় এক বৃদ্ধা গৃহবধূ নিহতহয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে আশাশুনি উপজেলার হাজীপুর গ্রামে এ ঘটনাটিঘটে। এ সময় আটক করা হয়েছে স্বামী ও স্ত্রী দুই প্রতারককে।নিহত গৃহবধূর নাম ফাতেমা খাতুন (৬০)। তিনি দেবহাটা উপজেলার দক্ষিণপারুলিয়া গ্রামের মৃত আজিবর রহমানের স্ত্রী।আটক প্রতারকদ্বয় হলো, আশাশুনি এলাকার মৃত শহিদুল ইসলামে ছেলেসাইফুল ইসলাম ও তার স্ত্রী আমেনা খাতুন।দেবহাটা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম খোকন জানান, দুপুরেএক মহিলাসহ তিন জনের একটি প্রতারক চক্র ফাতেমা খাতুনের বাড়িতেআসে। এ সময় তারা তাকে বলেন, আমরা আজমির শরীফ থেকে এসেছি। মা
তোমার যা যা সমস্যা আছে সব আমরা ঠিক দেবো। তুমি তোমার বাড়িরপাশের কবর স্থান থেকে ১৪০ কদম হেটে মাটি আনো। মাটি আনতে যাওয়ারসময় সুকৌশলে এই প্রতারক চক্র গৃহবধূ ফাতেমার কাছ থেকে তার গলারসোনার চেইন, আংটি, হাতের দুটি চুড়ি, কানের দুটি দুল সবইহাতিয়ে নেয়। এরপর গৃহবধূ ফাতেমা তার বাড়িতে এসে দেখেন ওই প্রতারকচক্রটি তার বাড়ি থেকে চম্পট দিয়েছে। তিনি দ্রæত একটিমোটরসাইকেল ভাড়া করে ওই প্রতারক চক্রের পিছু নেন। এক পর্যায়েআশাশুনি উপজেলার হাজীপুর গ্রামে যেয়ে তাদের গতিরোধ করতে গেলেতারা গৃহবধূ ফাতেমাকে সজোরে লাথি মারলে তিনি মটর সাইকেল থেকেছিটকে পড়ে মারাতœক আহত হন। এরপর স্থানীয়রা তাকে প্রথমে সাতক্ষীরাসদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে বিকালেতাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানকার কর্তব্যরতডাক্তার তার মৃত ঘোষনা করেন।ভাইস চেয়ারম্যান আরো বলেন,এ ঘটনা শুনে তিনি দ্রæত ঘটনাস্থলে যেয়েস্থানীয়দের সহায়তায় উক্ত প্রতারক চক্রের সদস্য সাইফুল ও তার স্ত্রী আমেনাখাতুনকে আটক করে দেবহাটা থানায় হস্তান্তর করেছেন।সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইয়াছিন আলী বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এ ব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।##