বুধবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন

822
gb

বুধবার গণমাধ্যমের সামনে সৌদিআরব, যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়া সফরের বিষয়ে জানাতে আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

গত ১৫ থেকে ২৩ এপ্রিল সৌদিআরব ও যুক্তরাজ্য সফর করেন প্রধানমন্ত্রী। সৌদিআরবের দাম্মামে সৌদি সামরিক জোটের মহড়ার সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে লন্ডনে কমনওয়েলথ সরকার প্রধানদের বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বিশ্ব নেতাদের সামনের রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধানের বিষয়টি জোরালোভাবে তুলে ধরেন। সরকার প্রধানদের সম্মেলনের যৌথ ঘোষণায় রোহিঙ্গা বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করে এ বিষয়ে স্বাধীন তদন্তের দাবি জানানো হয়। কমনওয়েলথ শীর্ষ সম্মেলনে শেখ হাসিনা বিভিন্ন সেশনে অংশ নিয়ে বক্তব্য দেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীসহ বিশ্বের বিভিন্ন নেতার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন; ব্রিটের রানির দেওয়া নৈশভোজেও তিনি অংশ নেন।

যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরে ২৬ থেকে ২৯ এপ্রিল অস্ট্রেলিয়া সফর করেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী ম্যালকম টার্নবুলের আমন্ত্রণে শুক্রবার সকালে সিডনিতে পৌঁছান তিনি।  পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ ও ভিয়েতনামের ভাইস প্রেসিডেন্ট দাং থি নাও থিন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। সেদিন রাতে শেখ হাসিনা যোগ দেন গ্লোবাল সামিট অন উইমেনে। নারী নেতৃত্বে সফলতার স্বীকৃতি হিসেবে ওই অনুষ্ঠানে তার হাতে তুলে দেওয়া হয় সম্মানজনক গ্লোবাল উইমেন লিডারশিপ অ্যাওয়ার্ড। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত প্রায় ১৫০০ নারী নেতাদের মুহূর্মুহূ করতালির মাঝে গ্লোবাল সামিট অব উইমেনের প্রেসিডেন্ট আইরিন নাতিভিদাদের কাছ থেকে এ পুরস্কার গ্রহণ করেন। এ সময় বিশ্ব নারী নেতারা কয়েক মিনিট ধরে দাঁড়িয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন