চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদক মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন

258
gb

চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি:

চাঁপাইনবাবগঞ্জে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দায়েরকৃত পৃথক দুটি মামলার রায়ে তিনজনকে যাবজ্জীবন কারদন্ড,প্রত্যেককে দশ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। দন্ডিতরা হলেন, সদর উপজেলার বাথানপাড়ার জাদেশ আলীর ছেলে বিষু আলী (৩২), শাজাহানপুর রাজাপাড়ার মৃত.আলতাফ হোসেনের ছেলে শামসুদ্দীন (৫২) ও চরহরিশপুরের মৃত.কচিমুদ্দীন বিশ্বাসের ছেলে মো.রহিম (৩৭)। চাঁপাইনবাবগঞ্জের অতিরিক্ত দায়রা জজ জিয়াউর রহমান মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১১টায় আসামীদের উপস্থিতিতে রায় দুটি ঘোষণা করেন। দুটি মামলার চার্য়শীটেই দন্ডিতদের হেরোইনসহ মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে অভিযুক্ত করা হয়। মামলার বিবরনে ও সরকারী কৌসুলী আঞ্জুমান আরা বেগম জানান, গত ২০১৬ সালের ৬ ফেব্রুয়ারী সন্ধ্যা ৭টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জে র‌্যাব-৫ ক্যাম্প সদস্যদের অভিযানে ৫শ’ গ্রাম হেরোইনসহ সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুর গ্রামের এশটি বাঁশ ঝাড় থেকে গ্রেপ্তার হন বাথানপাড়ার বিষু আলী। এঘটনায় পরদিন ৭ ফেব্রুয়ারী সদর থানায় মামলা করেন র‌্যাবের পুলিশ পরিদর্শক বেলাল হোসেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদর থানার ইসলামপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) আলমগীর হোসেন ওই বছরের ৩ এপ্রিল আদালতে বিষু আলীকে অভিযুক্ত করে চার্যশীট দাখিল করেন। ৮ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ ও শুনানী শেষে আদালত বিষু আলীকে দন্ডিত করেন। আসামী পক্ষে ছিলেন আ্যাড.আব্দুল ওদুদ। অপর মামলার বিবরনে জানা যায়, গত ২০১৬ সালের ৯ মার্চ রাত ১০টায় সদর উপজেলার শাজাহানপুর রাজাপাড়া গ্রামে চাঁপাইনবাবগঞ্জে র‌্যাব-৫ ক্যাম্প সদস্যদের অভিযানে ৮শ’গ্রাম হেরাইনসহ গ্রেপ্তার হন ওই গ্রামের শামসুদ্দীন ও চরহরিষপুরের মো.রহিম। এঘটনায় র‌্যাবের ডিএডি সাজ্জাদ হোসেন পরেরদিন ১০ মার্চ সদর থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মবর্তা সদর থানার ইসলামপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপপরিদর্শক (এসআই) আলমগীর হোসেন ওই বছরের ৩০ এপ্রিল আদালতে ওই দুজনকে অভিযুক্ত করে চার্যশীট দাখিল করেন। ১০ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও শুনানী শেষে আদালত শামসুদ্দীন ও রহিমকে দন্ডিত করেন। আসামী পক্ষে মামলা পরিচালানা করেন আ্যাড.ইয়াসমিন সুলতানা।