সাতক্ষীরায় টার্কি মুরগি পালনে ভাগ্য বদলেছে সাজিদার

423
gb

এম শাহীন গোলদার,সাতক্ষীরা ||
সাতক্ষীরা সদরের পুরাতন সাতক্ষীরা এলাকার গৃহিনী সাজিদা খাতুন সহ অনেকের। অভাবের সংসারে অনেক কঠিন সময় পার করেছেন। পোল্ট্রিফার্ম, ধান কিনে বিক্রিসহ নানা ধরনের ক্ষুদ্র ব্যবসা শুরু করলেও তেমন সচ্ছলতা আসেনি তার পরিবারে।
বছর তিনেক আগে তিনি পাশের গ্রাম থেকে একজোড়া টার্কি মুরগি কিনে আনেন। টার্কির বয়স ছয়-সাত মাস যেতে না যেতেই ডিম দেয়া শুরু হয়। এরপর তাকে আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। সেই একজোড়া টার্কি মুরগি থেকে এখন তিনি কয়েক’শ টার্কির মালিক।
প্রতি মাসে ডিম ও টার্কি মুরগি বিক্রি করে তার আয় ভালোই হয়। এখন বাণিজ্যিকভাবে টার্কির খামার করছেন তিনি।
সাজিদা খাতুন বলেন, সাধারণ মুরগির মতো এ মুরগির রোগবালাই হলেও তার খামারে বড় ধরনের কোনো অসুখ এখন পর্যন্ত হয়নি। তবে টার্কির রোগবালাই প্রতিরোধ ক্ষমতা খুব বেশি। ছয় মাসের একটি পুরুষ টার্কির ওজন হয় পাঁচ-ছয় কেজি এবং স্ত্রী টার্কির ওজন থাকে তিন-চার কেজি।
ইনকিউবেটরের মাধ্যমে ২৮ দিনেই এর ডিম ফুটানো যায়। এছাড়া বর্তমানে দেশি মুরগির মাধ্যমে টার্কির ডিম ফোটানোর ব্যবস্থা রয়েছে। তিনি এক মাসের টার্কি বাচ্চার জোড়া বিক্রি করেন আড়াই হাজার টাকায়। প্রতিটি ডিম বিক্রি করেন ২০০ টাকায়।
তিনি আরো বলেন, ঢাকা, খুলনা, যশোর, বরিশাল, পিরোজপুরসহ দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে তার টার্কি মুরগি কিনতে আসেন ক্রেতারা।
সাজিদার ভাষ্যে, টার্কির মাংসের সুখ্যাতি বিশ্বজুড়ে। এর উৎপাদন খরচ তুলনামূলক অনেক কম। তাই টার্কি পালন বেশ লাভজনক। টার্কির প্রধান খাবার ঘাস। তবে পাতাকপি, কচুরিপানা এবং দানাদার খাবারও খেয়ে থাকে এরা। প্রতি কেজি ৩০০ টাকা ধরা হলে ছয় কেজির একটি টার্কির দাম দাঁড়ায় ১ হাজার ৮০০ টাকা। তিনি জানান, যদি কোনো ব্যাংক থেকে ঋণ পান তবে খামার আরো বড় করার ইচ্ছা আছে তার।
অনেকেই আগ্রহ নিয়ে তার কাছে আসেন টার্কি সম্পর্কে খোঁজ খবর নিতে। সাতক্ষীরার অনেক খামারি টার্কি পালনে আগ্রহী। কিন্তু এর ডিম ও বাচ্চা সহজলভ্য নয়। এ বিষয়ে জ্ঞানের পরিসরও কম। তাই খামার স্থাপন করতে সাহস পাচ্ছেন না অনেকেই।
সাতক্ষীরা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সমরেশ চন্দ্র দাশ বলেন, টার্কি আমাদের প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের একটি নতুন প্রজাতি। অনেক দিন ধরে সাতক্ষীরাতে টার্কি লালন-পালন করা হচ্ছে। এটি একটি লাভজনক ব্যবসা এ কারণে খামারিরা এ ব্যবসায় ঝুঁকছেন। প্রাণিসম্পদ বিভাগ থেকে সকল টার্কি খামারিদেরকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ এবং সহযোগিতা করা হচ্ছে।

gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More