নিউইয়র্কস্থ সোসাইটি অফ ফরেন কনসালস কর্তৃক আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন

প্রবাসী এক বাংলাদেশী নারীও স্বীকৃতি পেলেন

448

হাকিকুল ইসলাম খোকন ||

নিউইয়র্কস্থ ”সোসাইটি অফ ফরেন কনসালস” (SOFC) আন্তর্জাতিক নারী দিবস (২০১৮) উপলক্ষ্যে বিভিন্ন দেশের বিশিষ্ট প্রবাসী নারীদের সংবর্ধনা প্রদান করে। ৫ মার্চ ২০১৮ অনুষ্ঠিত বহুজাতিক অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী কনস্যুলেট জেনারেলসমুহ একইসাথে তাদের ঐতিহ্যবাহী খাবার ও সংস্কৃতি তুলে ধরে। জাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানটি ম্যানহাটানস্থ চেক প্রজাতন্ত্রের কনস্যুলেট জেনারেল এর বোহেমিয়ান ন্যাশনাল হল-এ আয়োজন করা হয়।

নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল এই আয়োজনে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করে। শিক্ষা, ব্যবসায় ও সরকার-এ তিনটি ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ এবং দৃশ্যমান অবদানের জন্য অংশগ্রহণকারী ১৭টি দেশের বিশিষ্ট নারীকে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা (ঐড়হড়ৎবব) প্রদান করা হয়। কানেকটিকাট প্রবাসী বাংলাদেশী বিশিষ্ট বিজ্ঞানী, শিক্ষাবিদ ও মানবাধিকার কর্মী মিসেস গুলশান আরা, পিএইচডি (কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়) কে বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও শিক্ষা ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য সম্মাননা প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য, তিনি এমআইটি (Massachusetts Institute of Technology), হার্ভার্ড ও কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চতর বৈজ্ঞানিক গবেষণা কর্মে সম্পৃক্ত ছিলেন। প্রত্যেক দেশের মনোনীত প্রার্থীকে স্ব স্ব দেশের কনসাল জেনারেল এবং সোসাইটির সভাপতির উপস্থিতিতে সম্মাননা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট দেশের কনসাল জেনারেল সম্মাননাপ্রাপ্ত নারীর সফলতার উপরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশের ঐতিহ্য এবং সংস্কৃতির পরিচায়ক হস্তশিল্প সামগ্রীসহ অন্যান্য উপাদান দিয়ে সুসজ্জ্বিত স্টলে বিভিন্ন ঐতিহ্যবাহী খাবার (ফিস কেক, পাকোরা ও সামুচা) স্থান পায় যা বিপুল সংখ্যক বিদেশী অতিথিদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। বাংলাদেশের সংস্কৃতি তুলে ধরার অংশ হিসেবে লোকগানের সাথে দৃষ্টিনন্দন দলীয় নৃত্য উপস্থাপন করে নিউজার্সিভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ”সৃষ্টি একাডেমি অফ পারফর্মিং আর্টস” এর শিল্পীবৃন্দ। বিভিন্ন দেশের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক পর্বটি অনুষ্ঠানে নতুন মাত্রা যোগ করে।

বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল কর্তৃক উক্ত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের মাধ্যমে মার্কিন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা, বিদেশী কূটনীতিক ও সুশীল সমাজের সদস্যদের কাছে বাংলাদেশের বিশেষ করে প্রবাসী বিশিষ্ট নারীদের অবদানসহ বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী খাবার ও সংস্কৃতি উপস্থাপনের সুযোগ ঘটে। জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদুত এর স্ত্রী ফাহমিদা জেবীন, কনসাল জেনারেল শামীম আহসান,এনডিসি, তাঁর স্ত্রী মিসেস পেন্ডোরা চৌধুরী, কনস্যুলেট জেনারেল এর কর্মকর্তা, কর্মকর্তাদের স্ত্রী এবং কর্মচারীবৃন্দ অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন।

১৯২৫ সালে প্রতিষ্ঠিত সোসাইটি ফর ফরেন কনসালস (SOFC) নিউইয়র্ক ভিত্তিক কনস্যুলেট, কনস্যুলেট জেনারেল এবং অনারারি কনস্যুলেটগুলোর সমন্বয়ে গঠিত বিশ্বের বৃহত্তম কনস্যুলার কোর।

মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More