মৌলভীবাজারে বিএনপি নেতারা গা ঢাকা দিয়েছেন

701
gb

এস এম মেহেদী হাসান ||

গ্রেফতার এড়াতে মৌলভীবাজারের অনেকেই গা ঢাকা দিয়েছেন। অনেকেই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

৮ ফেব্রুয়ারি! কি হবে? সাজা না খালাস। এখন উত্তাল রাজনীতি। আতঙ্কিত সারাদেশের নেতাকর্মীদের ন্যায় মৌলভীবাজারের নেতাকর্মীরাও।
বেগম জিয়ার সাজা হলে অন্যান্য জেলায় নেতাকর্মীরা মাঠে থাকলেও, মৌলভীবাজার ভিন্ন থাকবে।
ধরপাকড়াও হবে, তাই নেতাকর্মীরা আত্মগোপনে চলে গেছেন।
ছাত্রদল ও যুবদলের গুটিকতক নেতাকর্মী মাঠে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।
তারই ইঙ্গিতবহে আসছে পুলিশের ৫ ফেব্রুয়ারি তারিখে  দায়েরককৃত মামলায় ৩৯ জন আসামীদের মধ্য দিয়ে।  যাদের হুকুমে মাঠে থাকবে কর্মী, তাদের নাম এজাাহারে নেই।  বিএনপির নেতারা শহর ছেড়ে গেছেন বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক নেতা জানান।
তারা আরোও বলেন, দিনে “বিএনপি ও রাতে আওয়ামীলীগ” নেতারা বহালতবিয়তে আছেন। তাদের বিরুদ্ধে কোন মামলাও হবেনা।

জেলা বিএনপির অনেক নেতা আছেন, তাদের জীবনে কখনও রাজনৈতিক মামলায় কারাগারে যেতে হয়নি।

মাঠ পর্যায়ের অনেক নেতাকর্মী ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমাদেরকে রাস্তায় থাকার নির্দেশ দিয়ে নেতাজি সরকার দলীয় নেতার বাসায় আড্ডা দেন। এই ধরনের নেতাদের কারণে বিএনপি মরা দলে পরিণত হচ্ছে।
তারা আরোও জানায়, মৌলভীবাজারে বিএনপির নেতাকর্মীরা মাঠে থাকলে সরকারীদল গা ঢাকা দেবে। মৌলভীবাজার বিএনপির ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন নেই বলেই আজ এমন অবস্থা।

সরকার কঠোর অবস্থানের কথা জানিয়ে দিয়েছে। তারা বিএনপিকে মাঠে দাড়াতেই দেবে না। মাঠে দাড়াতে না দিলে বিএনপি কী করবে?

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে অংশ নেয়নি বিএনপি। বর্জন শুধু নয়, ডাক দিয়েছিল নির্বাচন বয়কটের।