মৌলভীবাজারে পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের কর্মবিরতি শুরু

213
gb

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:

বেতন-ভাতা ও পেনশনসহ সকল সুবিধা রাষ্ট্রীয়কোষাগার থেকে প্রদানের দাবিতে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনমৌলভীবাজার জেলা শাখা ৩ দিনের কর্মবিরতিতে নামছে।শনিবার ২৭ জানুয়ারি রাতে মৌলভীবাজার প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক সংবাদ
সম্মেলনে এমন ঘোষণা দেন নেতৃবৃন্দ। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেনসিলেট বিভাগীয় কমিটির উপদেষ্টা ও মৌলভীবাজার পৌরসভার নির্বাহীপ্রকৌশলী আবুল হোসাইন খান। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবেমৌলভীবাজারে পৌর কর্মকর্তা কর্মচারীরা ২৮ জানুয়ারি থেকে ৩০ জানুয়ারিপর্যন্ত পানি সরবরাহ ছাড়া পৌর নাগরিকদের সকল ধরনের নাগরিক সেবা বন্ধথাকবে। লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, বিভিন্ন সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ সরকারী-ধর্মীয় ছুটি ঈদ, পূজা ও রাষ্ট্রীয় দিবস উদযাপনের জন্যপ্রয়োজনীয় ছুটি ভোগ করতে পারেন। অথচ পৌরসভায় নিয়োজিত কর্মকর্তাকর্মচারী গণ সরকারী ছুটি ভোগ না করে অক্লান্ত পরিশ্রম করে নাগরিক সেবাপ্রদান করে থাকেন। পৌরসভার নিজস্ব তহবিল থেকে কর্মকর্তা কর্মচারীদেরবেতন, পিএফ গ্রাচুইয়িটি প্রদান করতে হয়। কিন্তু তহবিল স্বল্পতার কারণেদিনরাত পরিশ্রম করেও মাস শেষে মিলছেনা তাদের বেতনের নিশ্চয়তা। এ ছাড়াসারাজীবনের পরিশ্রমের পর মিলছেনা পেনশন,পিএফ, গ্রাচুইয়িটি ইত্যাদি।দেশের অধিকাংশ পৌরসভায় ২ থেকে ৫৮ মাস পর্যন্ত বকেয়া রয়েছে বেতন। যেকারণে মানবেতরজীবন যাপন করতে হচ্ছে কর্মকর্তা কর্মচারীদের। এ সময়অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীএসোসিয়েশনের সিলেট বিভাগীয় সভাপতি সৈয়দ নকিবুর রহমান, বিভাগীয়কমিটির অর্থ সম্পাদক রনধীর রায় কানু, জেলা শাখার সভাপতি মোঃ আব্দুল মালেক,সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল মতিনসহ জেলা ও উপজেলার বিভিন্ন পৌরসভার পৌর কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।