করাচিতে বিমান বিধ্বস্ত, নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮০

49
gb
5

জিবিনিউজ 24 ডেস্ক //

পাকিস্তান এয়ারলাইন্সের (পিআইএ) অভ্যন্তরীণ রুটের একটি বিমান লাহোর থেকে করাচি যাওয়ার পথে ৯৯ জন আরোহী নিয়ে বিধ্বস্ত হয়েছে। করাচি বিমানবন্দরের কাছেই আবাসিক এলাকা মডেল কলোনিতে বিমানটি আছড়ে পড়ে। এ সময় চারপাশ কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায়। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত এ বিমান দূর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৮০ জনে দাঁড়িয়েছে। তবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি নিহতরা কি বিমানের যাত্রী নাকি স্থানীয় মানুষজন।

সিন্ধু প্রদেশের স্বাস্থ্য বিভাগের বরাত দিয়ে শুক্রবার রাতে এ খবর জানিয়েছে পাকিস্তানের ডেইলি অনলাইন ডন। এতে বলা হয়েছে, করাচির জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছেই এ ঘটনা ঘটেছে। বিমানটি বিধ্বস্তের পূর্বে বেশ কয়েকবার অবতরণের চেষ্টা করেছিলো। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলছেন মোবাইল টাওয়ারের সঙ্গে ধাক্কা খেয়েই নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে বিমানটি।

দেশটির বিমান চলাচল কর্মকর্তারা জানান, শুক্রবার পাকিস্তান ইন্টারন্যাশানাল এয়ারলাইন্সের (পিআইএ) জেট বিমান এ-৩২০ এ, ৯১ জন যাত্রী এবং ৮ জন বিমান কর্মী ছিলেন। লাহোর থেকে বিমানটি যাত্রা শুরু করে পাকিস্তানের অন্যতম ব্যস্ত একটি বিমানবন্দর করাচির জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাচ্ছিল।

পাকিস্তান সেনাবাহিনীর ইন্টার সার্ভিসেস পাবলিক রিলেশন্স (আইএসপিআর) এক বিবৃতিতে বলেছে, উদ্ধার ও সহায়তা কার্যক্রমে অংশ নিতে ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে আর্মি কুইক রিএকশন ফোর্স এবং সিন্ধু পাকিস্তান রেঞ্জার্স। উদ্ধার তৎপরতায় নামানো হয়েছে পাকিস্তান আর্মি এভিয়েশনের হেলিকপ্টার। ওদিকে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সিন্ধু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মিডিয়া সমন্বয়ক মিরান ইউসুফ বলেছেন, করাচির সব বড় হাসপাতালে জরুরি অবস্থা জারি করেছে স্বাস্থ্য ও জনকল্যাণ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের তথ্য বিষয়ক সহকারী অসিম সালিম বাজওয়া বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সব জরুরি সেবা ও সম্পদ কাজে লাগানো হয়েছে। উদ্ধার প্রক্রিয়া এগিয়ে চলছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন