জাবি উপাচার্যের অপসারণ দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ

44
gb

জিবি নিউজ ২৪ ডেস্ক//

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. ফারজানা ইসলামের অপসারণের দাবিতে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের একাংশ। অপরদিকে উপচার্য অপসারণের আন্দোলনকে বিশ্ববিদ্যালয় অস্থিতিশীল করার ‘ষড়যন্ত্রমূলক’ উল্লেখ করে মৌন মিছিল ও সমাবেশ করেছে উপাচার্যপন্থী শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

আজ বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় সমাজবিজ্ঞান অনুষদ থেকে বিক্ষোভ মিছিলটি শুরু হয়। পরে ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে মুরাদ চত্বরে গিয়ে সমাবেশের মধ্যে দিয়ে শেষ হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের বিএনপি, বাম ও আওয়ামীপন্থী (একাংশ) শিক্ষকদের পাশাপাশি আন্দেলন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ, ছাত্র ইউনিয়ন ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট জাবি শাখার নেতাকর্মীরা।

সমাবেশে আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক মারুফ মোজাম্মেলের সঞ্চালনায় দর্শন বিভাগের অধ্যাপক আনোয়ারুল্লাহ ভুঁইয়া বলেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের আর নৈতিক কোনো অধিকার নেই এই সম্মানিত পদে থাকার। আপনি দুর্নীতির সঙ্গে স্পষ্টভাবে যুক্ত হয়েছেন। এখন নতুন করে দলভারী করে আপনি প্রমাণ করতে চেয়েছেন আপনি দুর্নীতিবাজ নন। উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্নীতির রাজত্ব কায়েম করেছেন। শিক্ষকদের সন্তানদের চাকরি আর টাকার লোভ দেখিয়ে উপাচার্য বিভিন্ন শিক্ষকদের মহাসমাবেশে যুক্ত করেছেন। উপাচার্য এসব কাজ করে ক্ষমতায় টিকতে পারবেন না।

আন্দোলনকারীরা জানিয়েছেন একই দাবিতে বৃহস্পতিবার দুপুরে সংহতি সমাবেশ এবং ১৯ অক্টোবর মশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।

অপরদিকে বুধবার সকাল ১১টায় দুর্নীতির অভিযোগ তুলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামকে অপসারণের আন্দোলনকে ‘ষড়যন্ত্রমূলক ও ভিত্তিহীন’ দাবি করে মৌন মিছিল ও সমাবেশ করেছে উপাচার্যপন্থী শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

উপাচার্য বিরোধী আন্দোলন প্রতিহত করতে উপাচার্যপন্থী শিক্ষকদের সদ্য গঠিত সংগঠন ‘অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং উন্নয়নের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর’র ব্যানারে পূর্ব ঘোষিত তিন দিনব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসেবে এই মৌন মিছিল করা হয়। মৌন মিছিলটি শহীদ মিনার সংলগ্ন সড়ক থেকে শুরু হয়ে পুরাতন প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে সমাবেশের মধ্য দিয়ে শেষ হয়। এতে বিভিন্ন বিভাগের প্রায় তিন শতাধিক শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী অংশগ্রহণ করেন।

সমাবেশে ‘অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং উন্নয়নের পক্ষে জাহাঙ্গীরনগর’ সংগঠনের মুখপাত্র অধ্যাপক আলমগীর কবিরের সঞ্চালনায় উপাচার্যপন্থী শিক্ষকরা আন্দোলনকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং অযৌক্তি দাবি করে বলেন, উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে দুর্নীতির কল্পিত অভিযোগ এনে বিশ্ববিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। এটি একটি স্বার্থান্বেষী মহলের ষড়যন্ত্র ছাড়া কিছুই নয়।

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More