নেত্রকোনায় স্বামীর পরকীয়ার বলি সুনামগঞ্জ এর চায়না সূত্রধর অবশেষে ঘাতক স্বামী ও পরকীয়া প্রেমিকা মামী পুলিশের খাচায় বন্দি

350
gb

উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)থেকে ||

স্বামীর পরকীয়া প্রেমে বাধা দেওয়ার কারনে নববধূ চায়না সূত্রধরকে শ্বাসরোধে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার সকালে নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ পৌর শহরের উত্তর দৌলতপুর এলাকার রাউৎপাড়ায়। খবর পেয়ে পুলিশ নববধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছে। ঘটনার পর তাঁর স্বামী দুলাল সূত্রধর গাঢাকা দিলেও অবশেষে ঘাতক স্বামী ও পরকীয়া প্রেমিকা মামীকে পুলিশ আটক করেছে।

নিহতওে পািরবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, প্রায় ছয় মাস আগে রাউৎপাড়ার রতন সূত্রধরের (মৃত) ছেলে দুলাল সূত্রধরের সঙ্গে সীমান্তবর্তী এলাকা সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার চাকুয়া গ্রামের অমৃত লাল সূত্রধরের মেয়ে চায়না সূত্রধরের বিয়ে হয়। দীর্ঘদিন ধরে রাউৎপাড়াতেই থাকছেন দুলালের মামা বিমল সূত্রধর। চায়নার পরিবারের অভিযোগ, বিয়ের আগে থেকেই মামির সঙ্গে দুলালের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক আছে। বিয়ের পর বিষয়টি চায়নার চোখে পড়লে তিনি স্বামীকে বাধা দেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তাঁকে শারীরিকভাবে নির্যাতন শুরু কওে স্বামী দুলাল। গত সোমবার স্বামী-স্ত্রী রাতের খাবার শেষে প্রতিদিনের ন্যায় ঘুমিয়ে পড়েন। পরদিন মঙ্গলবার সকালে বিছানায় চায়নাকে অচেতন অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে প্রতিবেশীরা। এ সময় দুলালকে ঘরে পাওয়া যায়নি। পরে প্রতিবেশীরা চায়নাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত ঘোষণা করেন। লাশের পা ও গলায় আঘাতের চিহ্ন আছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক ডাঃ সুবীর সরকার।