ডিমলায় মানবতাবিরোধী অপরাধে ৭ রাজাকার গ্রেফতার

128

ক্রাইম রিপোর্টার নীলফামারী\

নীলফামারীর ডিমলায় ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালিন মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ৭রাজাকারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।এ মামলায় মোট ৮ জন আসামির মধ্যে ৭ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।অপরজন পলাতক রয়েছেন। গ্রেফতারকৃতদের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে হাজির করতে মঙ্গলবার(২ জুলাই)রাত ১০টায় ঢাকার উদ্যেশ্যে পাঠানো হয়।এর আগে একইদিনের ভোরে অভিযান চালিয়ে ওইসব আসামীদের নিজ নিজ বাড়ি হতে গ্রেফতার করেন ডিমলা থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত ৭ রাজাকার হলেনঃ-উক্ত উপজেলার খালিশাচাপানী ইউনিয়নের ফুটানীরহাট গ্রামের মৃত ইব্রাহীম মুন্সির ছেলে একরামুল হক (৭৮),ডিমলা সদর ইউনিয়নের দক্ষিন তিতপাড়া গ্রামের মৃত শাহাদত উল্লাহর ছেলে আব্দুস ছাত্তার(৭৯),একই ইউনিয়নের বাবুরহাট গ্রামের নফির উদ্দিন ফেসু মুন্সির ছেলে নুরুল হক (৬৫), নিজপাড়া গ্রামের মৃত তাজ উদ্দিন ওরফে ফাকসু মাহমুদের ছেলে জবেদ আলী(৭১),বালাপাড়া ইউনিয়নের দক্ষিন সুন্দরখাতা গ্রামের মৃত আব্দুল হাকিমের ছেলে আব্দুল খালেক(৭১),গয়াবাড়ি ইউনিয়নের গয়াবাড়ি গ্রামের মৃত বক্তার উদ্দিনের ছেলে মোখলেছার রহমান খোকা(৭৬),একই ইউনিয়নের উকিলপাড়া গ্রামের মৃত কছিমুদ্দিন সরকারের ছেলে শহীদুলাহ সরকার(৭০)। এই মামলার অপর আসামী ডিমলা সদর ইউনিয়নের বাবুরহাট গ্রামের কাউছার মোড়ের বাসীন্দা ও মৃত হাতেম আলীর ছেলে শাহাদৎ হোসেন (৬৮) পলাতক রয়েছেন। নীলফামারী পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন ৭জন রাজাকারকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ৮ আসামীর বিরুদ্ধে ১৯৭৩ সালের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের এ্যাক্টের ৩(২) ধারা মোতাবেক গ্রেফতারী পরোয়ানার আদেশে আমরা ৭জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই।যার মামলা নং-৮৮ তারিখ ২০/১১/২০১৭ইং। এদিকে উপজেলার স্বাধীনতা ও মানবতাবিরোধী রাজাকারদের তালিকা দ্রæত সময়ের মধ্যে জনসম্মুখে প্রকাশ করার জোর দাবি জানিয়েছেন উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা,সুধী সমাজ,সচেতনমহল ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের বিভিন্ন রাজনৈতিক,সামাজিক,সাংস্কৃতিক সংগঠন গুলো।