৬২ ও ৬৯ এর ছাত্র-গণ আন্দোলনে কুমিল্লার নেতা, মুক্তিযুদ্ধের বিশিষ্ট সংগঠক জেএসডি হাবিবুল্লাহ চৌধুরী আর নেই

121

। ছাত্রলীগ এর বৃহত্তর কুমিল্লা জেলার এককালীন সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা, ৬২ ও ৬৯ এর ছাত্র-গণ আন্দোলনে কুমিল্লার অগ্র সেনানী, মুক্তিযুদ্ধের বিশিষ্ট সংগঠক জেএসডি/ জাসদ প্রতিষ্ঠার উদ্যোক্তাদের অন্যতম, জেএসডি’র এককালীন কৃষি বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুল্লাহ চৌধুরী আর নেই (ইন্নালিল্লাহে……………….রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। গতরাত ১২.০০ টায় তিনি ঢাকা হার্ট ফাউন্ডেশনে শেষ নিঃশ^াস ত্যাগ করেন। তিনি ১ ছেলে ও ১ মেয়ে রেখে গেছেন। উল্লেখ্য যে, তার মরহুমা স্ত্রী ৬৯ এর ছাত্র-গণ আন্দোলনের অগ্রনী নেত্রী, বীর মুক্তিযোদ্ধা, জেএসডি’র এককালীন নেত্রী মমতাজ বেগম এবং তার পিতা কুমিল্লা বিশিষ্ট কংগ্রেস নেতা এ্যাড. হেদায়েত উল্যাহ চৌধুরী। তিনি চাঁদপুরের হাজী গঞ্জের বিখ্যাত চৌধুরী বাড়িতে জন্মগ্রহন করলেও বড় হয়েছেন কুমিল্লার মুন্সেফ পাড়াস্থ পিতার বাসভবনে ও রাজনীতি করেছেন কুমিল্লা কেন্দ্রীক। তার একমাত্র ছেলে বিদেশ থেকে আসলে আগামীকাল প্রথমে ঢাকা, এর পর কুমিল্লা এবং সর্বশেষ হাজীগঞ্জে নামাজে জানাজা শেষে তাকে চৌধুরী বাড়ির গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন করা হবে। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি সভাপতি জনাব আ স ম আবদুর রব ও সাধারণ সম্পাদক জনাব আবদুল মালেক রতন এক বিবৃতিতে হাবিবুল্যাহ চৌধুরীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও তার পরিবার পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করে বলেন, রাজনীতিতে তিনি ছিলেন অসীম সাহসী ও দৃঢ়চেতা মানুষ। কোন বাধা বিপত্তি, জেল-জুলুম তাকে লক্ষ্যবিচ্যুত করতে পারেনি। নেতৃবৃন্দ তার রুহের মাগফেরাত কামনা করেন।