নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলায় ৩ বাংলাদেশি নিহত

75

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদের বন্দুকধারীর গুলিতে ৪০ জন নিহত ও বহু আহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে তিন বাংলাদেশি রয়েছেন বলে জানা গেছে।

শুক্রবার জুমার নামাযের সময় আল-নূর মসজিদে স্বয়ংক্রিয় বন্দুক দিয়ে গুলিবর্ষণ করেন অস্ট্রেলীয় বংশোদ্ভূত ব্রেনটন টারান্ট।

হামলার বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার এম সুফিউর রহমান সাংবাদিকদের জানান, তারা এখন পর্যন্ত তিনজন বাংলাদেশি নিহতের কথা জেনেছেন।

এ ছাড়া গুলিবর্ষণের ঘটনায় আহত ৪ বাংলাদেশি স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আর একজন বাংলাদেশি নিখোঁজ রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

হাইকমিশনার আরও জানান, হতাহত ব্যক্তিদের সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে নিউজিল্যান্ড সরকারের সঙ্গে আমাদের নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে।

নিউজিল্যান্ডে বাংলাদেশের কোনো দূতাবাস নেই। অস্ট্রেলিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনের মাধ্যমে সেখানকার দূতাবাসের কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানিয়েছে, মসজিদে জুমার নামাজ শুরুর ১০ মিনিটের মধ্যে ওই বন্দুকধারী সিজদায় থাকা মুসল্লিদের ওপর গুলি চালতে থাকে।

ক্রাইস্টচার্চের আল-নূর মসজিদে জুমা আদায়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট টিমের সদস্যরা। তবে, মসজিদে প্রবেশের আগ মুহূর্তে গুলির শব্দ শুনে দৌড়ে চলে আসায় রক্ষা পেয়েছেন।

এরপর আগামীকাল শনিবারের তৃতীয় টেস্ট বাতিল করা হয়েছে এবং বাংলাদেশ দল দেশে ফিরে আসছে।

এদিকে, দূতাবাসের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমার ভুইয়া বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, নিহতদের একজন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. আবদুস সামাদ। তিনি স্থানীয় লিঙ্কন বিশ্ববিদ্যালয়েও শিক্ষকতা করতেন। এ ঘটনায় তার স্ত্রীও নিহত হয়েছেন। নিহত অন্যজন হোসনে আরা ফরিদ, গৃহবধূ ছিলেন।

তিনি আরও জানান, মসজিদে হামলার ঘটনায় অন্তত চার বাংলাদেশি আহত হয়েছেন। এদের মধ্যে দু’জনের অবস্থা গুরুতর। একজন নিখোঁজ রয়েছেন।

মন্তব্য
Loading...