কৃষি অর্থনীতির উন্নয়নের মাধ্যমে দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়া সম্ভব: স্পিকার

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা ||

জাতীয় সংসদের স্পিকার ও রংপুর-৬ পীরগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, কৃষি অর্থনীতির উন্নয়নের মাধ্যমে দারিদ্র্যমুক্ত দেশ গড়া সম্ভব। সরকার নিজস্ব জলবায়ু তহবিল গঠন, উপকূলীয় অ লে সাইক্লোন শেল্টার নির্মাণ, লবণাক্ততা সহনীয় ধানের জাত উদ্ভাবনসহ নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। যা জলবায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে এদেশের কৃষি ও কৃষকের অভিযোজনে এবং টেকসই লক্ষ্য অর্জনে ভূমিকা রাখবে।
বৃহস্পতিবার বিকালে পীরগঞ্জের জাহাঙ্গীরাবাদ হাটে সমকাল সমাজ উন্নয়ন সংস্থা আয়োজিত জলবায়ু ও কৃষি মেলা ২০১৯-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
ড. শিরীন শারমিন বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকার দরিদ্রবান্ধব সরকার, কৃষিবান্ধব সরকার। মাত্র ১০ টাকায় কৃষকের জন্য ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা, সার, বীজ ও কীটনাশকের সহজলভ্যতা এবং সঠিক
কৃষিনীতি গ্রহণের কারণে বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ।’ এ সময় তিনি খাদ্য সংরক্ষণ ও বিপণনে উদ্ভাবনী চিন্তা-ভাবনা প্রয়োগের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।
আগামীতে দেশ দারিদ্র্যমুক্ত হবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধারাবাহিক দুই মেয়াদে রাষ্ট্রক্ষমতায় এসে দারিদ্র্যের হার ৪০ শতাংশ থেকে ২২ শতাংশে নামিয়ে এনেছেন। সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংস্থাসমূহ দারিদ্র্য কমিয়ে আনতে কাজ করলে বাংলাদেশ দ্রুত দারিদ্র্যমুক্ত হবে।’
তিনি বলেন, ‘সরকার গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর দারিদ্র্য কমিয়ে আনতে বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, প্রতিবন্ধী ভাতা, ল্যাকটেটিং মাদার ভাতা প্রদান করছে। ভবিষ্যতে এর আওতা আরও বৃদ্ধি করা হবে। এছাড়াও গ্রামীণ নারীদের জন্য আয়বর্ধক সেলাই প্রশিক্ষণ, কম্পিউটার প্রশিক্ষণ এবং ভিক্ষুকদের পুনর্বাসনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।’
এর আগে স্পিকার তিন দিনব্যাপী জলবায়ু ও কৃষি মেলার উদ্বোধন করে বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন। মেলায় জলবায়ু ও পরিবেশ বিষয়ক স্টল স্থান পেয়েছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন