ফকিরহাটের সর্বত্র পানের বরজে পান চুরি হিড়িক চাষিদের রাতের ঘুম হারাম

44

পি কে অলোক,ফকিরহাট।|
বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলার সর্বত্র পানের মুল্য চড়া হওয়ায় করনে পান চুরির হিড়িক পড়েছে। পান চাষিরা চোরের উপদ্রপ হতে রক্ষ পেতে রাত জেগে পাহারা দিয়েও চুরি রোধ করতে পারছেন না। এঅবস্থায় তাদের রাতের ঘুম হারাম হয়ে পড়েছে। এব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য তারা উর্দ্ধতন পুলিশ কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। জানা গেছে, পানের মুল্য চরম ভাবে বেড়ে যাওয়ার কারনে চাষিরা উপকৃত হলেও ক্রেতারা পড়েছেন মহাবিপাকে। চাষিরা ন্যার্য মূল্য পাওয়ার আশায় সারা বছর অক্রান্ত পরিশ্রম করার পর আজ তারা সঠিক মূল্য পেয়ে বিজয় খুশি হয়েছেন। চাষিরা বলেছেন, বর্তমান বাজারে ভাল ১কুড়ি পানের মূল্য প্রায় ১৬হাজার থেকে প্রায় ১১হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রয় হচ্ছে। কিন্তু রাতের বেলায় একটি চক্র পান চুরি করে চাষিদের সর্বশান্ত করে তুলেছেন। চলতি মাসের মাত্র ১৫দিনে উপজেলার পিলজংগ ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামের পান চাষিদের পানের বরজে ব্যাপক চুরি সংঘঠিত হয়েছে। সুত্র মতে টাউন নওয়াপাড়া গ্রামের ভীম সাধুর পানের বরজ হতে ৭ফাই পান চুরি, একই দিন রাতে শ্যামবাগাত গ্রামের কদম কুমার দাশের পানের বরজ হতে ৬ফাই পান চুরি, গৌর কুমার দে এর পানের বরজ হতে ৫ফাই পান চুরি, পিলজংগ গ্রামের রওশান আলীর পানের বরজ হতে ৫৫ফিলু পান চরি, অসিম দাশের পানের বরজ হতে ৩৩ফিলু পান চুরি, বিশ^জিৎ দাশের পানের বরজ হতে ৫২ফিলু পান চুরি, অভিলাশ দাশের পানের বরজ হতে ৪৪ফিলু পান চুরি, মানিক দাশের পানের বরজ হতে ৩২ফিলু পান চুরি, লিটু সরদারের পানের বরজ হতে পান চুরি, অচিন্ত দাশের পানের বরজ হতে ৫৫ফিলু পান চুরি, জগন্নাগ দাশের পানের বরজ হতে ৩৩ফিলু পান চুরি ও টাউন নওয়াপাড়ার ফকির বাড়ীর লিটু ফকিরের পানের বরজ হতে ৪৫ফিলু পান চুরি হয়েছে। একটি চোর চক্র দীর্ঘকাল ধরে দিনে ও রাতে পানের বরজ হতে একেরপর এক পান চুরি করলেও তাদের বিরুদ্ধে আইনগত কোন পদক্ষেপ গ্রহন করা হয় না। যে কারনে পানের বরজের পান চুরি অব্যাহত রয়েছে। আর এতে পান চাষিরা সর্বশান্ত হয়ে পড়েছেন। কেউ কেউ রাত জেগে পাহারা দিয়েও শেষ রক্ষা করতে পারছেন। এছাড়াও বালিয়াডাঙ্গা জয়পুর লখপুর মানসা বাহিরদিয়া মৌভোগ নলধা ঘনশ্যামপুর সহ বিভিন্ন এলাকায় পান চুরি বৃদ্ধি পেয়েছ। এব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য উদ্ধতন পুলিশ কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন পান চাষিরা।

মন্তব্য
Loading...