নবীগঞ্জে ইনাতগঞ্জে সরকারী জায়গা ভরাট করে ঘর তৈরীর অপরাধে ব্যবসায়ী আমিনুরকে ভ্রাম্যমান আদালতে ৭ দিনের জেল,২টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

104
gb

উত্তম কুমার পাল হিমেল,নবীগঞ্জ(হবিগঞ্জ)থেকে ||

নবীগঞ্জ উপজেলার ইনাতগঞ্জের হাজী তশক উল্লা অটো রাইছ মিলের স্বত্ত¡াধীকারী আমিনুর রহমান (৪০) কে বে আইনীভাবে সরকারী খাল ভরাট করে দখল করার অপরাধে ৭ দিনের বিনাশ্রম জেল দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নবীগঞ্জ সহকারী কমিশনার (ভ’মি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো: আতাউল গণি ওসমানী ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে উল্লেখিত সাজা প্রদান করেন। দন্ডপ্রাপ্ত আমিনুর ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের চন্ডিপুর গ্রামের মৃত হাজী তশক উল্লার পুত্র।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আমিনুর রহমান গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে ইনাতগঞ্জ বাজারের পাশে সরকারী জায়গা আত্মসাত করার লক্ষে রাজা মিয়ার বাড়ী সংলগ্ন সরকারী খাল মাটি ফেলে ভরাট করছিলেন। খবর পেয়ে ইনাতগঞ্জ ভ’মি অফিসের তহশিলদার সাহেদ আহমদ সরেজমিনে এসে মাটি ভরাট করতে বাধা দেন । আমিনুর নিষেধ অমান্য করে মাটি ভরাট অব্যাহত রাখেন। এ সময় তহশিলদার সাহেদ আহমদ এর সাথে খারাপ দূর্ব্যবহার করেন আমিনুর।
খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনাস্থল ইনাতগঞ্জে ছুটে আসেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট নবীগঞ্জ সহকারী কশিনার (ভ’মি) আতাউল গণি ওসমানী। তাহার নির্দেশে ইনাতগঞ্জ ফাঁড়ির পুলিশ পরিদর্শক সামছদ্দিন খাঁন আমিনুরকে আটক করে স্থানীয় ভ’মি অফিসে নিয়ে আসেন।
সরকারী জায়গা আত্মসাতের লক্ষে মাটি ভরাট করার সত্যতা পাওয়ায় বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষন আইন ১৯৯৫ এর ৬(ঙ) ধারা মোতাবেক ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে আমিনুর রহমানকে ৭ দিনের বিনাশ্রম জেল প্রদান করেন সহকারী কমিশনার (ভ’মি)ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মো: আতাউল গণি ওসমানী। নবীগঞ্জ থানার মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সহকারী কমিশনার (ভ’মি) মো: আতাউল গণি ওসমানী।
এছাড়া ভ্রাম্যামান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট গতকাল দুপুরে নবীগঞ্জ-বানিয়াচুং সড়কের রাজাবাদ ব্রীজ সংলগ্ন শাখাবরাক নদীতে মাঠি ভারাট করে অবৈধভাবে ঘর তৈরী করলে একই ধারায় তা উচ্ছেদ করে ফেলেন।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন