ঝিনাইদহে গাছে উল্টো করে ঝুলিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন করার ঘটনায় গ্রেফতার ২

146
gb

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ||

সামান্য টিভি চুরির অপবাদ দিয়ে ঝিনাইদহের হরিণাকুন্ডু উপজেলার শ্রীপুর গ্রামে রানা (২৭) নামে এক যুবককে গাছে উল্টো করে ঝুলিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় অমানবিক নির্যাতন করেছে .লীগের একাংশের ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি শাহিনূর রহমান তুহিন নামে স্থানীয় এক .লীগ নেতা। ঘটনায় যুবককে মধ্যযুগীয় কায়দায় গাছে উল্টো করে বেঁধে নির্যাতনের ভিডিওটি ইতিমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে স্থানীয় .লীগ নেতা কিছু যুবকের সহায়তায় রানাকে একটি কাঁঠাল গাছে উল্টো করে ঝুলিয়ে অমানসিক নির্যাতন করছেন। তাকে লাঠি দিয়ে বেধড়ক পেটানো হচ্ছে। সময় যুবকটি হাউমাই করে আর্তনাদ করতে থাকে। নির্যাতনের ফলে যুবকটি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৮ ডিসেম্বর উপজেলার তাহেরহুদা ইউনিয়নের শ্রীপুর গ্রামে। নির্যাতিত যুবক রানা গ্রামের ওমর আলীর ছেলে। তাহেরহুদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগের একাংশের ইউনিয়ন সভাপতি মুনজুরল আলম জানান, গত ২৮ ডিসেম্বর দুপুরে মাঠে কাজ করছিল রানা। সময় শাহিনূর রহমান তুহিন টেলিভিশন চুরির অভিযোগে তাকে ধরে নিয়ে আসে। এর পর গ্রামের একটি গাছে ঝুলিয়ে অমানবিক ভাবে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন করে। নির্যাতনের পর পরিবারের সদস্যরা মূমূর্ষ অবস্থায় তাকে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।

রানার পিতা ওমর আলী জানান, আমার ছেলে কোন চুরির সাথে জড়িত নয় তাকে অন্যায় ভাবে মারা হয়েছে। এই নির্যাতনের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে নড়ে চড়ে বসে স্থানীয় জেলা পুলিশ। জানুয়ারী রাতে নির্যাতিত যুবক রানার বাবা বাদী হয়ে হরিণাকুন্ডু থানায় অভিযুক্ত .লীগ নেতা শাহিনূর রহমান তুহিন সহ জন কে এজাহার নামীয় অজ্ঞাত নামা আরও / জন কে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেন।মামলা দায়েরেরে সাথে সাথে পুলিশ .লীগ নেতা তুহিন সহ বাবুল কাজী নামে আরও একজন কে শুক্রবার মধ্য রাতে গ্রেফতার করে। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস.আই জগদিশ চন্দ্র জানান ঘটনার সাথে আরও জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। আশা করি দ্রুত অন্য আসামীদের গ্রেফতার পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।  হরিণাকুন্ডু থানার .সি আসাদুজ্জামান জানান, চুরি অপবাদ দিয়ে নির্যাতন করা অন্যায় অমানবিক তিনি বলেন পুলিশ সুপারের নির্দেশে ঘটনায় শুক্রবার রাতে জনের নামে মামলা হয়েছে, প্রধান অভিযুক্ত তুহিন সহ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকীদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে। দিকে সামান্য চুরির অপরাধে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতনের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক তোলপাড়ের সৃষ্টি হয়েছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন