ভোটজনিত বিধিনিষেধ আর তীব্র শীত কমাতে কর্মচঞ্চল হচ্ছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের জনজীবন

168
gb

জাকির হোসেন পিংকু, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি ||
ভোটজনিত বিধিনিষেধ,নিরাপত্তা কড়াকড়ি আর তীব্র শীত কিছুটা কমাতে ধীরে ধীরে কর্মচঞ্চল হয়ে আসছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের সাধারণ মানুষের জনজীবন। ১’জানুয়ারী মঙ্গলবার থেকে মানুষের চলাফেরা বাড়লেও ২’জানয়ারী বুধবার জনজীবন ছিল প্রায় স্বাভাবিক। যদিও বছর শেষ আর শুরুর পর মানুষের মাঝে এক ধরনের অলসতা এখনও বিরাজ করছে।  ধারণা করা হচ্ছে আরেকটি সাপ্তাহিক ছুটির পর আগামী ৬’জানুয়ারী রোববার নাগাদ জনজীবন পূর্ণ স্বাভবিক গতি পাবে। 
ভোটজনিত কারনে নির্বাচন কমিশন জারিকৃত নিরাপত্তাজনিত কড়াকড়ি  ও বিধিনিষেধ বাড়ানো হয় ২৮ ডিসেম্বর থেকে। যা ১’জানয়ারী পর্যন্ত চালু ছিল। আর এই সময়টাতেই বয়ে যায় মৌসুমের তীব্র শৈত্য প্রবাহের প্রথম ধাক্কা। ফলে এ’কদিন সাধারণ মানুষ অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে তেমন বের হননি। ৩দিন যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকায় সড়কগুলিও ছিল অনেকটাই ফাঁকা। সাপ্তাহিক আর ভোটের ছুটি একসাথে হওয়ায় অনেকইে ছুটির আমেজে সময় কাটিয়েছেন বাড়িতেই। ছুটিতে আর ভোট দিতে জেলার বাইরে কর্মরত অনেকেই বাড়িতে আসেন এসময়। ২৫ডিসেম্বর বড়দিনের ছুটিসহ বছরের শেষ সপ্তাহে ব্যাংক বন্ধ ছিল ৫দিন। বছর শেষে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতেও চাপ ছিল কম। ফলে ২৮’ডিসেম্বর-১’জানুয়ারী পর্যন্ত সাধারণ মানুষ ছিল ঘর কেন্দ্রীক।
এ সময় নির্বাচনের দায়িত্ব পালনকারী ও দলীয় নেতাকর্মীরা  ছাড়া অন্য মানুষের মাঝে স্বাভাবিক কর্ম ব্যস্ততা দেখা যায়নি। তবে ৩০’ডিসেম্বর নির্বাচনের দিন ছিল ব্যতিক্রম। সেদিন অনেক মানুষই ভোট উপলক্ষে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বাড়ীর বাইরে থাকে। সাপ্তাহিক আর ভোটের ৩দিন ছুটির পর ৩১’ডিসেম্বর সরকারী কর্মদিবস চালু হয়। তবে অফিস আদালতে ভীড় ছিল কম। দেশের অনান্য স্থানের মত চাঁপাইনবাবগঞ্জে ৩১’ডিসেম্বর রাতে বর্ষবরণের আয়োজন ছিল সীমিত। চাঁপাইনবাবগঞ্জে সুষ্ঠু পরিবেশে নির্বাচন ও  বুধবার পর্যন্ত জেলায়  এ নিয়ে তেমন কোন সহিংসতা না ঘটায় সাধারণ মানুষ সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। 
এদিকে জেলায় কোন আবহাওয়া অফিস না থাকায় তাপমাত্রার সঠিক হিসেব পাওয়া যায়না। জেলা কৃষি সম্প¯্রারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মঞ্জুরুল হুদা জানান, বুধবার সকালে তারা ম্যানূয়াল পদ্ধতিতে সর্বনি¤œ তাপমাত্রা মেপেছেন ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তিনি বলেন, প্রকৃত তাপমাত্রা এর চাইতে কিছু কম হবে। তবে ৪দিন তীব্র ঠান্ডার পর মঙ্গলবার থেকেই জেলার তাপমাত্রা বাড়তে থাকে বলে জানান তিনি।  
টানা চারদিন বন্ধ থাকার পর ১’জানুয়ারী মঙ্গলবার থেকে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম সোনামসজিদ বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়েছে বলে জানিয়েছেন বন্দর সিএন্ডএফ এসাসিয়েসন সভাপতি হারুনুর রশীদ। জেলা শহরের রেস্তোঁরা ব্যবসায়ী আব্দুল মোমিন(২৫) জানান, বুধবার ব্যবসা ছিল প্রায় স্বাভাবিক।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন