Bangla Newspaper

খাশোগি হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি থামান: সৌদি যুবরাজকে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

49

জিবি নিউজ24 ডেস্ক //

ভবিষ্যতে খাশোগি হত্যাকাণ্ডের মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি থামাতে সৌদি যুবরাজের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। আর্জেন্টিনায় জি ২০ সম্মেলনে উভয়ের মধ্যে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান। শুক্রবার ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

থেরেসা মে সৌদি যুবরাজকে বলেন, ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঠেকাতে যুবরাজের ব্যবস্থা নেওয়া উচিত। সৌদি আরবকে অবশ্যই ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হওয়ার ব্যাপারে আস্থা অর্জন করতে হবে। দায়ীদের অবশ্যই জবাবদিহিতার আওতায় আনতে হবে।

২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে নৃশংস হত্যাকাণ্ডের শিকার হন সাংবাদিক জামাল খাশোগি। খুনের নির্দেশদাতা হিসেবে আঙ্গুল উঠে খোদ সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের বিরুদ্ধে। সৌদি আরবের পক্ষ থেকে প্রথমে এ হত্যাকাণ্ডের খবর অস্বীকার করা হয়। পরে আন্তর্জাতিক চাপের মুখে হত্যাকাণ্ডের ঘটনা স্বীকার করলেও এর সঙ্গে যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সম্পৃক্ততার খবর অস্বীকার করা হয়। ওই ঘটনায় দুনিয়াজুড়ে সমালোচনার মুখে পড়েন এমবিএস নামে পরিচিত মোহাম্মদ বিন সালমান।

খাশোগি হত্যাকাণ্ডের পর এবারের জি ২০ সম্মেলন দিয়েই প্রথমবারের মতো বিশ্বনেতাদের মুখোমুখি হলেন এমবিএস। তবে খাশোগি হত্যাকাণ্ড এবং ইয়েমেনে সৌদি জোটের সামরিক আগ্রাসনে দেশটি দুর্ভিক্ষের দ্বারপ্রান্তে দাঁড়ানোর বাস্তবতায় এবারের জি ২০ সম্মেলনে অপেক্ষাকৃত শীতল অভ্যর্থনা পেয়েছেন সৌদি যুবরাজ। সম্মেলনের প্রাক্কালে খাশোগি হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে ১৭ সৌদি নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে কানাডা। এক বিবৃতিতে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ক্রিস্টিয়া ফ্রিল্যান্ড বলেন, খাশোগি হত্যাকাণ্ড মূলত বাকস্বাধীনতার ওপরেই আঘাত। কানাডা এর সুষ্ঠু তদন্ত চায়।

খাশোগি হত্যার ঘটনায় শুরু থেকেই আন্তর্জাতিক চাপের মুখে রয়েছে সৌদি আরব। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ডেনমার্ক সৌদি আরবে অস্ত্র রফতানি বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে। সৌদি আরবে অস্ত্র রফতানির জন্য লাইসেন্স ইস্যু করা বন্ধ রেখেছে জার্মানি। ১৯ নভেম্বর ১৮ জন সৌদি নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে দেশটি। কয়েকদিনের মধ্যে ওই সৌদি নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে ফ্রান্স।

বৃহ্স্পতিবার ১৭ সৌদি নাগরিকের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে কানাডা জানায়, তাদের ধারণা তারা খাশোগি হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলো। খুনের সঙ্গে জড়িতদের অবশ্যই বিচারের আওতায় আনতে হবে।

৫৯ বছর বয়সি খাশোগি এক সময় সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ ব্যক্তি থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ে সৌদি যুবরাজের কঠোর সমালোচকে পরিণত হন। গ্রেফতার এড়াতে দুই বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা নির্বাচনে চলে যান খাশোগি। দ্বিতীয় বিয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে গত ২ অক্টোবর ইস্তানবুলের সৌদি কনস্যুলেটে গিয়ে হত্যার শিকার হন খাশোগি। প্রথমে অস্বীকার করলেও পরে খাশোগিকে হত্যার কথা স্বীকার করে সৌদি আরব জানায়, ইস্তানবুলের কনস্যুলেটে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে খুন হন সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগি। এ ঘটনায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগও ওঠে। তবে সৌদি কর্তৃপক্ষ সে অভিযোগ নাকচ করে আসছে। তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান জোর দিয়ে বলেছেন, সৌদি আরবের ‘শীর্ষ পর্যায়’ থেকে এ হত্যাকাণ্ডের নির্দেশ এসেছে। সূত্র: আল জাজিরা, মিডল ইস্ট আই।

Comments
Loading...