খুলনা-৬ আসনে বহিরাগত প্রার্থী মধুর মনোনয়ন প্রত্যাহারের দাবীতে পাইকগাছা জাপার সংবাদ সম্মেলন

158
gb

 পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি //

খুলনা-৬ আসনে বহিরাগত প্রার্থী শফিুকুল ইসলাম মধুর দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাহার করে স্থানীয় জনপ্রিয় জাপানেতা মোস্তফা কামাল জাহাঙ্গীরের মনোনয়ন চূড়ান্ত করে মহাজোটের একক প্রার্থী ঘোষণার দাবী জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নির্বাচনী এলাকা পাইকগাছা উপজেলা ও পৌর জাপার নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার সকালে উপজেলা জাপার দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা জাপার সদস্য সচিব সামছুল হুদা খোকন লিখিত বক্তব্যে বলেন, কেন্দ্রীয় সদস্য ও উপজেলা জাপার আহবায়ক মোস্তফা কামাল জাহাঙ্গীর এলাকার একজন জনপ্রিয় নেতা। তিনি দীর্ঘদিন এলাকার উন্নয়নে আন্দোলন সংগ্রাম ও সাধারণ মানুষের পাশে থেকে জনসেবা করে আসছেন। তিনি দশম সংসদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছিলেন। কিন্তু পার্টির চেয়ারম্যানের নির্দেশে তখন তিনি মনোনয়ন প্রত্যাহার করে নেন। সেই থেকে অদ্যাবধি তিনি দলীয় একক প্রার্থী হিসাবে এলাকায় কাজ করে যাচ্ছেন। শুধু জাতীয় পার্টি নয়, মহাজোটগত ভাবেও মোস্তফা কামালের ব্যাপক গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। বিভিন্ন সংস্থার রিপোর্ট ও জরিপ প্রতিবেদনের ভিত্তিতে এবারের নির্বাচনেও তাকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। একই সাথে জেলার সভাপতি শফিকুল ইসলাম মধুকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হয় যা অত্যান্ত দুঃখ জনক। প্রকৃতপক্ষে শফিকুল ইসলাম মধু’র জন্মস্থান বরিশালে। বর্তমানে তিনি খুলনা শহরে স্থায়ী বসবাস করেন। খুলনার সিটি নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্ব›দ্বীতা করে সাড়ে ৪ লাখ ভোটের মধ্যে আনুমানিক ৩ হাজার ভোট পান। এতে প্রতিয়মান হয় সাধারণ মানুষের কাছে তার কোন গ্রহণযোগ্যতা নাই। তাকে মনোনয়ন দেওয়ায় নির্বাচিত এলাকার দলীয় নেতৃবৃন্দ সহ সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ইতোমধ্যে তার মনোনয়ন প্রত্যাহারের দাবীতে প্রতিবাদ সভা ও মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। জাপানেতা সামছুল হুদা একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শফিকুল ইসলাম মধুর মনোনয়ন প্রত্যাহার করে জনপ্রিয় ও গ্রহণযোগ্য প্রার্থী হিসাবে মোস্তফা কামাল জাহাঙ্গীরের দলীয় মনোনয়ন চূড়ান্ত করে মহাজোটের একক প্রার্থী ঘোষণার দাবী জানান। এ সময় দলীয় বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।