ফেসবুকের গোপনীয়তা নিরাপত্তা করতে লগইনেরপরিবর্তন

৫ কোটির বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য তাদের অজ্ঞাতেই হাতিয়ে নিয়েছে, ফেসবুক

দুর্নীতি ফাঁস করা জনৈক কর্মী সম্প্রতি দাবি করেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের ২০১৬-র প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে জড়িত সংস্থা কেম্বরিজ অ্যানালিটিকা ৫ কোটির বেশি ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য তাদের অজ্ঞাতেই হাতিয়ে নিয়েছে, ফেসবুক সেই তথ্য মুছে ফেলতে বলার পরও তারা সেগুলি তাদের কাছেই হয়ত রেখে দিয়েছে।

551
gb

মধুলীনা কলকাতা থেকে || জিবি নিউজ২৪.কম ||

এ ব্যাপারে শোরগোল ছড়িয়েছে বাকি বিশ্বের সঙ্গে ভারতেও। এ দেশেও ফেসবুক ব্যবহার করেন, এমন লোকের সংখ্যা ২০ কোটির বেশি। এবার গ্রাহকদের ভরসা দিতে ফেসবুক জানাল, তারা থার্ড পার্টি অ্যাপসের জন্য তাদের ইউসেজ পলিসি অর্থাত্ ব্যবহার সংক্রান্ত নীতি বদলাচ্ছে। গতকাল খোদ ফেসবুক কর্ণধার মার্ক জুকেরবার্গ স্বীকার করেন, তাঁরা ভুল করেছেন, জানান, মার্কিন কংগ্রেসের সামনে তিনি এ ব্যাপারে খুশি হয়ে প্রশ্নের জবাবও দেবেন। ভারতও এই ইস্যুতে ফেসবুক সম্পর্কে কঠোর অবস্থান নিয়েছে।

ফেসবুক এক ব্লগপোস্টে বলেছে, আমাদের প্ল্যাটফর্মের অপব্যবহার, মানুষের তথ্য নিয়ে ছিনিমিনি হয়ে উঠেছি জেনেছি। জানি, আরও কিছু করা প্রয়োজন আমাদের। প্রত্যেক ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্যের গোপনীয়তা নিশ্চিত করা আমাদের দায়িত্ব। ‘কীভাবে ডেভেলপাররা ফেসবুক গড়বেন, লোকে তাঁদের কাছে কী চান, সবচেয়ে বড় কথা, আমাদের কাছে কী প্রত্যাশা করেন, সে ব্যাপারে আরও উন্নত মান’ বেঁধে দেওয়ার কথা রয়েছে ব্লগপোস্টে। ২০১৪ সালে তথ্য জানার সুযোগ কমাতে ফেসবুক তাদের প্ল্যাটফর্ম বদলানোর আগে যেসব অ্যাপের প্রচুর তথ্য জানার সুযোগ ছিল, সেইসব অ্যাপ পরীক্ষা করবে, সন্দেহজনক কাজকর্ম রয়েছে, এমন যে কোনও অ্যাপ বিস্তারিত অডিট করবে বলেও জানিয়েছে। বলেছে, ডেভেলপাররা গোপন তথ্যের অপব্যবহার করেছেন দেখা গেলে তাঁদের নিষিদ্ধ করা হবে। আরও এগিয়ে অসদুদ্দেশ্যে তথ্য ব্যবহারের জন্য কোনও অ্যাপ সরিয়ে দেওয়া হলে যাঁরা তা ব্যবহার করেছেন, তাঁদের সবাইকেও জানাব। ফেসবুক বলেছে, আমরা লগ ইনে বদল করছি যাতে পরের ভার্সনে কোনও অ্যাপ রিভিউ ছাড়া যেসব ডাটা চায়, সেগুলি কমানো হবে। শুধু নাম, প্রোফাইল ছবি, ই মেল অ্যাড্রেস দিতে হবে। এর অতিরিক্ত কোনও তথ্য চাইলেই আমাদের অনুমোদন লাগবে। এছাড়া তারা বাগ বাউন্টি প্রোগ্রামও আরও সম্প্রসারিত করবে, যাতে লোকে অ্যাপ ডেভেলপাররা তথ্যের অপব্যবহার করছে বুঝতে পারলে জানাতে পারেন। ফেসবুক বলেছে, এইসব আপডেটের কয়েকটি ইতিমধ্যেই চালু রয়েছে, বাকিগুলি ইউরোপীয় ইউনিয়নে কার্যকর হতে চলা নতুন তথ্য সুরক্ষা আইন সংক্রান্ত। এ সপ্তাহের ঘটনাবলীর পর আমাদের উদ্যোগ জোরদার হয়েছে। ব্যবহারকারীদের তথ্য সুরক্ষিত রাখার পাশাপাশি আমাদের প্ল্যাটফর্ম আরও নিরাপদ করে তুলতে আমরা নতুন বেশি কিছু ব্যবস্থা করছি। এইসব বদল হচ্ছে তারই আওতায়।