সাপাহারে ডাকাতিকালে ট্রাকের ধাক্কায় এক ডাকাতের মৃত্যু আহত ৬

200
gb

 

গোলাপ খন্দকার সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ

নওগাঁর সাপাহারে সড়কডাকাতিকালে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে এক ডাকাতের মৃত্যু সহডাকাতির কবলে পড়া ৬জন নিরীহ মানুষ গুরুতর আহত হয়ে মৃত্যুর সাথেপাঞ্জা লড়ছে। ঘটনাটি গত মঙ্গলবার দিবাগত রাত্রি ১২টার দিকে সাপাহার-পোরশা রাস্তার বাসুল ডাঙ্গা মোড়ের অদুরে ঘটেছে।জানা গেছে ওই দিন রাত্রি ১১টার দিকে বাসুল ডাঙ্গা গ্রামের আশাদুলহকের পুত্র রুহুল আমিনের স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন শারীরীকভাবে অসুস্থ্য হয়েপড়লে রুহুল আমিন গ্রামের বয়েজ উদ্দীনের পুত্র জামানের ব্যাটারী চালিত
ইজি-বাইক ভাড়া করে তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী তাছলিমা খাতুন ও গ্রামেরলতিফর এর পুত্র মিলন, ময়েজউদ্দীনের পুত্র মসজিদের ইমাম জাহিদুল ইসলাম,আলেকবাবুকে সাথে নিয়ে সাপাহার হাসপাতেল চিকিৎসা করতে আসে।
চিকিৎসা শেষে ১১.৪৫মিনিটের দিকে তারা ৬জনে আবার তাদের ইজি-বাইকে চড়ে বাড়ীর উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়ে রাত্রি ১২টার দিকে তাদের গ্রামেরঅদুরে বাসুল ডাঙ্গা মোড়ে পৌঁছলে পূর্ব হতে ওই মোড়ে ছোট ছোটকয়েকটি গাছ ও রাস্তার ব্রীজের উভয় পাশে থাকা সাংকেতিক কয়েকটিপিলার দ্বারা রাস্তায় বেরিকেট দিয়ে ওতপেতে থাকা ডাকাত দলের কবলে পড়ে।এসময় ডাকাত দল তদের ইজি-বাইকটি রাস্তার মাঝখানে আটকে রেখে কাওকেনামতে না দিয়ে যার কাছে যা আছে ছিনিয়ে নেয়। ঠিক ওই মহুর্তেসামনের দিক হতে দ্রæত গতিতে ছুটে আসা একটি ট্রাক ওই স্থানেপৌঁছলে তারা রাস্তায় বেরিকেট দেখে সকলকে ডাকাত ভেবে বেরিকেটভেঙ্গে রাস্তায় থাকা ডাকাত সহ ইজি-বাইকটিকে সরা সরি চাপা দিয়েচলে যায়। এসময় ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে একজন ডাকাত ও ইজি-বাইকটিদুমড়ে মুচড়ে বাইকে থাকা ৬জন যাত্রীই গুরুতর আহত হয়। আহতদের সঙ্গেসঙ্গে পুনরায় হাসপাতালে নিয়ে এলে রুহুল আমিনের ছোট ভাইয়ের স্ত্রী
তাছলিমা খাতুন ও বাইক চালক জামান সহ সকলের অবস্থা ভয়াবহ রুপ নিলেরাতেই তাদের রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ট করা হয়। এর কিছুক্ষন পরে রাত্রী ১টার দিকে সাপাহার থানা টহল দল ঘটনা স্থলে টহলে গিয়েরাস্তার পার্শ্বে এক ডাকাতকে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে সেখানথেকে তাকে উদ্ধার করে পুলিশ পিক-আপে করে হাসপাতালে নিয়ে এলে ভোর৪টার দিতে অজ্ঞাত ওই ডাকাতের মৃত্যু হয় বলে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানায়।