আজ শুভ বড়দিন

317
gb

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:অন্ধকারে আলো জ্বেলেছিলেন। দেখিয়েছিলেন মুক্তির পথ, যে পথে চললে জীবন হয়ে ওঠে শান্তিময়।তিনি যিশুখ্রিস্ট, যাঁকে ক্রুশবিদ্ধ হতে হয়েছিল। পরম ধামে যাওয়ার পথ বাতলে দেওয়া সেই যিশুর জন্মদিন আজ। আজ শুভ বড়দিন। খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব।আজকের দিনে খ্রিস্ট ধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিস্ট বেথেলহেমে জন্ম নিয়েছিলেন। ঈশ্বরের মহিমা প্রচার এবং মানবজাতিকে সত্য ও ন্যায়ের পথে পরিচালিত করতে পৃথিবীতে এসেছিলেন যিশু। আজ তাঁরই জন্মদিনের নতুন উচ্ছ্বাসে, আলোকপ্রভায় দেখা দেবে নতুন দিন। শুদ্ধ মনে শুধুই আলো নেচে উঠবে চারধারে।বিভিন্ন দেশের মতো আজ সোমবার বাংলাদেশেও খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীরা বড়দিন পালন করবে যিশুর প্রতি পরম শ্রদ্ধায়।এরই মধ্যে বড় বড় হোটেল ও ভবন সাজানো হয়েছে নানা আলোয়। রাজধানীর বিভিন্ন গির্জা ও আশপাশের এলাকা রঙিন আর জরি দিয়ে সুসজ্জিত করা হয়েছে। সাজানো হয়েছে ক্রিসমাস ট্রি। এভাবে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে চূড়ান্ত প্রস্তুতি শেষে দিনটি পালন করা হবে বিশেষ অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে।বড়দিন উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা রওশন এরশাদ এ উপলক্ষে গতকাল রবিবার পৃথক বাণী দিয়েছেন। বাণীতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ বাংলাদেশ। আবহমানকাল ধরে এ দেশে সব ধর্মের মানুষ পারস্পরিক ভালোবাসা ও সম্প্রীতির বন্ধনে আবদ্ধ। বিদ্যমান সম্প্রীতির এই সুমহান ঐতিহ্যকে আরো সুদৃঢ় করতে ধর্ম-বর্ণ-নির্বিশেষে সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে অবদান রাখতে হবে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর বাণীতে খ্রিস্টান সম্প্রদায়সহ জাতি-ধর্ম-নির্বিশেষে সবাইকে ঔদার্য ও মানবতার মহান ব্রতে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের কল্যাণ ও উন্নয়নে এগিয়ে আসার উদাত্ত আহ্বান জানান। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি, বড়দিন দেশের খ্রিস্টান ও অন্যান্য সম্প্রদায়ের মধ্যে বিরাজমান সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি আরো সুদৃঢ় করবে। ’বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গতকাল এক বিবৃতিতে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘বিশ্বের সব খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীর কাছে এই দিনটি অত্যন্ত মহিমান্বিত ও মর্যাদাপূর্ণ। শুভ বড়দিন একটি সর্বজনীন ধর্মীয় উৎসব। আর প্রতিটি ধর্মীয় উৎসবের অন্তর্লোক হচ্ছে সম্প্রীতি, সহাবস্থান ও শুভেচ্ছা। ’ বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও পৃথক বিবৃতিতে খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদও এক বিবৃতিতে খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের বড়দিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।দেশের বিভিন্ন গির্জায় আজ সকাল থেকে বড়দিনের প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হবে। রাজধানীর তেজগাঁও ক্যাথলিক গির্জায় বিশেষ প্রার্থনা হবে। আজ গির্জার ফটক ও সড়কের পাশে বসবে মেলা। এভাবে বিভিন্ন স্থানে পালন করা হবে বড়দিন। পাবনার খ্রিস্টানপল্লীতে গতকাল থেকেই বিরাজ করছিল উৎসবের আমেজ। বড়দিনে আজ খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীদের ঘরে ঘরে কাটা হবে কেক। সঙ্গে থাকবে নানা উপাদেয় খাবারের আয়োজন। থাকবে মেলা, কীর্তন ও গানের অনুষ্ঠান। বাংলাদেশ খ্রিস্টান অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট নির্মল রোজারিও ও মহাসচিব হেমন্ত আই কোড়াইয়া গতকাল এক যুক্ত বিবৃতিতে বাংলাদেশসহ বিশ্বের সব খ্রিস্ট ধর্মাবলম্বীর প্রতি শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।