দুদকের মামলায় ঝিনাইদহের দুই বিএনপি নেতার জামিন

749
gb

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ
দুর্নীতি দমন কমিশনের মামলায় নিন্ম আদালতে সাজাপ্রাপ্ত ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সভাপতি ও চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মোঃ মসিউর রহমান ও সাবেক সংসদ সদস্য এবং বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য আব্দুল ওহাব উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন। গত মঙ্গলবার শৈলকুপা উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি মোঃ আব্দুল ওহাব হাই কোর্ট ডিভিশনের ১৯ নং আদালত থেকে জামিন নেন। আব্দুল ওহাবের পক্ষে ব্যারিষ্টার আমিনুল ইসলাম মামলাটি পরিচালনা করেন। গত ৩০ অক্টোবর সাবেক সংসদ সদস্য মোঃ আব্দুল ওহাবের বিরুদ্ধে ৮ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও জ্ঞাত আয় বর্হিভূত ৯৩ লাখ ৩৭৮ টাকার অবৈধ সম্পদ বাজেয়াপ্তের রায় দেন যশোরের স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক (জেলা জজ) নিতাই চন্দ্র সাহা। এ দিন তাকে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৯ মাসের কারাদন্ড প্রদান করে। বুধবার যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে তিনি মুক্তি পান। এদিকে গত বুধবার হাই কোর্টের একই আদালতের বিচারক ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মোঃ মসিউর রহমানকে জামিন দেন। শারিরীক অসুস্থতার কারণে মসিউর রহমান বর্তমান পিজন সেলে ঢাকায় চিকিৎসাধীন। দুর্নীতি দমন কমিশনরে (দুদক) দায়ের করা মামলায় গত ২৫ অক্টোবর বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ মসিউর রহমানের ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড ও জ্ঞাত আয় বর্হিভূত ১০ কোটি ৫ লাখ ৬৯ হাজার ৩৩০ টাকার অবৈধ সম্পদ বাজেয়াপ্তের রায় দেন যশোরের স্পেশাল ট্রাইব্যুনালের বিচারক (জেলা জজ) নিতাই চন্দ্র সাহা। এ দিন তাকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৯ মাসের সশ্রম কারাদন্ডের আদেশ দেওয়া হয়। জামিন নিয়ে আব্দুল ওহাব ঝিনাইদহে ফিরলেও মসিউর রহমান এখনো কারাগারেই আছেন।