বিশ্বনাথে ডাকাতি: আহত-২

মিজানুর রহমান মিজান, সিলেট থেকে::

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার রামপাশা ইউনিয়নের আনর পুর গ্রামের লন্ডন প্রবাসি ছালেক মিয়ার বাড়িতে এক দুর্ধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ডাকাতের আক্রমণে দু’জন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন হাফিজ ছাদিকুর রহমান ও ছিদ্দেক আলী।ডাকাতরা ৪ ভরি স্বর্ণ ও ১৫ হাজার টাকা লুট করে নিয়ে যায়। গতকাল মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটে।জানা যায় আনর পুর গ্রামের লন্ডন প্রবাসি ছালেক মিয়ার ছোট ভাই হাফিজ ছাদিকুর রহমান ও ছিদ্দেক আলী ২/৩ দিন পূর্বে বিশ্বনাথের একটি ব্যাংক থেকে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকা উত্তোলন করে ঋণ পরিশোধ করেন।টাকা উত্তোলনের এ খবর পেয়ে যায় ডাকাতদল। মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে হাফপেন্ট পরা ৫/৬ জনের একদল ডাকাত বাড়ির বাউন্ডারির গেইটের তালা ভেঙ্গে প্রথমে বাড়িতে প্রবেশ করে এবং পরে বসত ঘরের গেইটের তালা ও কাঠের একটি বড় দরজা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে সকলকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে একটি রুমে আটকে রাখে এবং টু শব্দ না করতে হুমকি দেয়। তখন মুখোশ পরা একজন ডাকাত তাদেরকে ব্যাংক থেকে উত্তোলনকৃত টাকা ও ঘরে থাকা ১০ ভরি স্বর্ণ বের করে দেয়ার হুমকি প্রদান করতে থাকে। অন্য ডাকাতরা ঘরের আলমারির চাবি খুজতে থাকে। এক সময় একজন ডাকাত ছিদ্দেক আলীকে ছুরি দিয়ে আঘাত করে রক্তাক্ত জখম করে।অন্যরাও মহিলাদের মারপিট শুরু করে আতংকের সৃষ্টি করে।এ সময় নিরুপায় হয়ে প্রাণ বাঁচাতে ডাকাতদের হাতে চাবি দেয়া হয়। ডাকাতরা চাবি দিয়ে ওয়ার্ডড্রপের তালা খুলে ৪ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ১৫ হাজার টাকা লুট করে পালিয়ে যায়। ডাকাতরা এসময় আঞ্চলিক ভাষায় কথা-বার্তা বলেছে এবং তাদের বয়স ২০ থেকে ২৫ বছরের মধ্যে হবে।যাবার সময় তাড়াহুড়ার মধ্যে ডাকাতরা একটি কুড়াল, সাবল ও একটি স্ক্রু-ড্রাইভার ফেলে যায়। যাবার সময় বলেছে পুলিশ কিংবা সাংবাদিকদের বিষয়টি জানালে পরবর্তীতে এসে পরিবারের সকলকে খুন করবে বলে হুমকি দিয়ে যায়।এখন পুরো পরিবারটি আতংকের মধ্যে রয়েছে।খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। থানার ওসি শামিম মুসা বলেছেন, ঘটনার খবর পেয়েছি ব্যবস্তা নেয়া হবে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন