ইতিহাসের বাঁকে ব্যারিস্টার জায়মা রহমান

জিবি নিউজ ২৪

এ যেনো এক ইতিহাস ছোঁয়া সাফল্য। উপমহাদেশ তথা এশিয়ার তাবৎ এলাকা জুড়ে একসময় যারা নেতৃত্ব দিয়েছেন তারা জীবনের একটা সোনালী সময় পাড়ি দিয়েছেন গ্রেটবৃটেনে। পড়েছেন আইন শাস্ত্রে।আইন পেশার তীর্থ হিসেবে পরিচিত বৃটেনের ইনার টেম্পল। ব্যারিস্টার হিসাবে স্বীকৃতি দেয়া চার ইনস অব কোর্টের শীর্ষ পাদপীঠ ইনার টেম্পল। ৭’শ বছরের কালজয়ী ইতিহাসের স্বাক্ষী এই ইনার টেম্পল থেকেই ব্যারিস্টার হয়ে বিশ্বময় দ্যোতি ছড়িয়েছেন ইতিহাসের রথি-মহারথিরা। যারা হয়েছেন ইতিহাসের আইকনিক চরিত্র। আইন পেশাকে ছাপিয়ে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে ব্রত হয়েছিলেন অনেকে। বৃটিশ বিরোধী অহিংস আন্দোলনের জনক ভারতের স্থপতি মহাত্মা গান্ধী, দেশটির প্রথম প্রধানমন্ত্রী পন্ডিত জহওহর লাল নেহেরু, পাকিস্তানের প্রথম প্রধানমন্ত্রী লিয়াকত আলী খান, ভারতের সাবেক প্রেসিডেন্ট ফখরুদ্দিন আলী আহমেদ এখান থেকেই বার-অ্যাট-ল ডিগ্রি নিয়েছেন।

এই ইনার টেম্পলের সদস্য ছিলেন বৃটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ক্লেমেন্ট এটলে এবং জর্জ গ্রেনভিলে, মালয়েশিয়ার প্রথম প্রধানমন্ত্রী টেঙ্কু আব্দুল রহমান, শ্রীলংকার সাবেক প্রধানমন্ত্রী এস ডব্লিউ আরডি বন্দরনায়েকসহ ইতিহাসে স্থান পাওয়া অনেকেই। গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাসের বাঁকে জায়গা করে নিলেন বাংলাদেশের এক বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক পরিবারের গর্বিত সন্তান জায়মা রহমান।

খ্যাতি বিজড়িত লন্ডনের ইনার টেম্পলের কালের পরিক্রমায় এবার বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং তার স্ত্রী ডা: জোবায়দা রহমানের একমাত্র কন্যা জায়মা। দাদা বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতার ঘোষক ও বহুদলীয় গণতন্ত্রের প্রবক্তা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং দাদী তিন বারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া; নানা সাবেক নৌপ্রধান ও মন্ত্রী রিয়ার এডমিরাল মাহবুব আলী খান আর নানী সমাজ হিতৈষী সৈয়দা ইকবাল মান্দ বানু।

লন্ডনের ইনার টেম্পল থেকে বার-অ্যাট-ল অর্জন করা জায়মাকে সামলে নিতে হয়েছে নানা ঘাত-প্রতিঘাত। শাসক গোষ্ঠীর নির্যাতন আর রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার বাবা তারেক রহমানকে দেখেছে হার না মানা মানুষ হিসেবে। বিপর্যয়ের মধ্যেও মাথা তুলে দাঁড়ানো মমতাময়ী মা’র কাছ থেকে পেয়েছে সংকল্পে অটুট থাকার প্রেরণা হিসেবে।

মঙ্গলবার লন্ডনে “কল টু বার” উৎসবে প্রিয় বাবা ও মায়ের উপস্থিতিতে তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে বার-অ্যাট-ল ডিগ্রি প্রদান করা হয়। বাবা মায়ের আনন্দের হাসির সাথে জায়মার মুখের হাসি যখন একাকার, পরক্ষণেই হাসি বিষাদে পরিণত হয়ে যায় অন্ধকার কারাগারের প্রকোষ্ঠে দিন যাপন করে চলা দাদী বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক আন্দোলনের কালজয়ী নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার কথা ভেবে।

যুক্তরাজ্যের কুইন মেরি ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে আইনে স্নাতক ডিগ্রি অর্জন শেষে বার সম্পন্ন করেন ব্যারিস্টার জায়মা রহমান।

প্রসঙ্গত, বৃটেনের রাজা হেনরি-২ এর শাসনামলের শুরুর দিক থেকেই যাত্রা শুরু হয় ইনার টেম্পলের। বৃটেনে ব্যারিস্টার এবং জাজদের জন্য চার ইনস অব কোর্টের মধ্যে অন্যতম হল ইনার টেম্পল। বৃটেন এবং ওয়েলসে আইন প্র্যাকটিস করার ক্ষেত্রে ব্যারিস্টারের কল অর্জন করতে হয়। ১৩৮৮ সালে ইনার টেম্পলের যাত্রা শুরু হয় বৃটেনে। এখান থেকে ডিগ্রি নেয়া বৃটেনের নামকরা আইনজীবিদের অন্যতম হলেন স্যার এডওয়ার্ড কুক, লেডি জাস্টিস বার্টলার স্লস, লর্ড জাস্টিস বিরকেট এবং ব্যারিস্টার এডওয়ার্ড মাশার্ল হল ।

 

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন