সিলেটি যুবকের সঙ্গে ভারতীয় নারীর প্রেম নিয়ে সীমান্তে তুলকালাম

125
gb

জিবি নিউজ ২৪ ডেস্ক//

প্রেমের টানে ভারত থেকে বাংলাদেশের সিলেটে এসেছিলেন ভারতীয় এক খাসিয়া নারী। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক বাংলাদেশিসহ শতাধিক গরু ধরে নিয়ে যায় খাসিয়ারা।

এ নিয়ে বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে কয়েক দফা পতাকা বৈঠক হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১টা থেকে বিকাল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত সিলেটের জৈন্তাপুর উপজেলার টিপরাখলা সীমান্তে দুদেশের পুলিশ-জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে বিজিবি ও বিএসএফের মধ্যে পতাকা বৈঠক হয়।

এসময় উভয় দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি জনপ্রতিনিধিদের উপস্থিতির মাধ্যমে প্রেমের টানে সিলেটে চলে আসা ভারতীয় নাগরিক ও বাংলাদেশ থেকে ধরে নিয়ে যাওয়া যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদের নিজ নিজ দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে তুলে দেয়া হয়।

ভারতীয় নারীকে ফেরত পেয়ে শতাধিক গরুসহ বাংলাদেশি যুবককে ফেরত দিয়েছে বিএসএফ।

প্রেমের টানে ভারত থেকে পালিয়ে আসা খাসিয়া নারী প্রেমিক ফিরোজ মিয়ার কাছ থেকে বাড়ি ফিরতে অস্বীকৃতি জানালে তার স্বজনরা অনেকটা জোর করে নিয়ে যায়। আর এর মধ্য দিয়ে সপ্তাহ ধরে চলা দুই দেশের সীমান্তের উত্তেজনাও প্রশমিত হলো।

জানা গেছে, সীমান্তে বিজিবি-বিএসএফের পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বাংলাদেশ থেকে খাসিয়া নারীকে নিতে আসেন তার স্বামীসহ পরিবারের লোকজন। কিন্তু তিনি ফিরে যেতে আপত্তি জানান। মাটিতে লুটিয়ে পড়ে এক সন্তানের জনক বাংলাদেশি যুবক ফিরোজের কাছে থাকার আকুতি জানান পাঁচ সন্তানের জননী।

তবে তার এই কথায় কেউ সায় দিতে পারেনি। একপর্যায়ে তাকে কোলে তুলে বিজিবি-বিএসএফ ও পুলিশের উপস্থিতিতে সীমান্ত অতিক্রম করেন খাসিয়ারা।

জৈন্তাপুর ক্যাম্প কমান্ডার আব্দুল কাদির জানান, আমরা কয়েক দফা শান্তিপূর্ণভাবে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে বাংলাদেশে চলে আসা নারীকে পুলিশের মাধ্যমে মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলা হতে উদ্ধার করে নিয়ে আসি। পরে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে তাকে ভারতীয় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে তুলে দেই।

খাসিয়া কর্তৃক ধরে নিয়ে যাওয়া বাংলাদেশি নাগরিকসহ গরুগুলো তাদের নিকট হতে বুঝে আনি। বর্তমানে জৈন্তাপুর উপজেলার টিপরাখলা এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।

এই ওয়েবসাইটটি আপনার অভিজ্ঞতা উন্নত করতে কুকি ব্যবহার করে। আমরা ধরে নিচ্ছি যে আপনি এটির সাথে ঠিক আছেন তবে আপনি চাইলে অপ্ট-আউট করতে পারেন Accept আরও পড়ুন