স্মল গ্র্যান্টস ফান্ড থেকে অনুদান পেলো টাওয়ার হ্যামলেটসের ১৩টি প্রকল্প 

35
gb
টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের স্মল গ্র্যান্টস ফান্ড (এসজিএফ) নামের ক্ষুদ্র অনুদান তহবিল থেকে প্রায় ৪৫ হাজার পাউন্ড পেয়েছে স্থানিয়ভিত্তিক ১৩টি কমিউনিটি প্রকল্প, যার সুফল পাবেন সহস্রাধিক বাসিন্দা।
বারার বাসিন্দাদের জীবন মান উন্নয়নে বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে এমন ধরনের ছোট ছোট কমিউনিটি প্রজেক্টগুলোকে এককালীন আর্থিক সহায়তা দেয়ার লক্ষ্যে গত বছর এই ফান্ড গঠন করা হয়েছিলো। প্রথম রাউন্ডের বিডিং প্রক্রিয়ায় অংশ নিয়ে যে প্রজক্টেগুলো অনুদান পেলো, সেগুলোর কার্যক্রম আগামী অক্টোবর মাস থেকে শুরু হবে। প্রায় ৪২ হাজার পাউন্ডের বেশি অর্থমূল্যের প্রথম ফান্ডিং রাউন্ডের জন্য প্রায় ৮ গুণ বেশি অর্থাৎ ৭৬টি আবেদন জমা পড়েছিলো, যার মোট আর্থিক পরিমাণ হচ্ছে ৩ লাখ ৫৫ হাজার পাউন্ডের কিছু কম। পরবর্তি রাউন্ডের বিডে আরো ৪৮ হাজার পাউন্ড অনুদান প্রদান করা হবে, যেগুলোর কাজ শুরু হবে ২০২০ সালের জানুয়ারি মাস থেকে।
টাওয়ার হ্যামলেটসের মেয়র জন বিগস এ প্রসঙ্গে বলেন, আমাদের বাসিন্দাদের জীবন যাত্রায় সত্যিকারের পরিবর্তন আনতে সক্ষম এমন কিছু প্রকল্পে অর্থ বিনিয়োগ করতে পেরে আমি আনন্দিত। কাউন্সিল হিসেবে আমরা যে আমাদের স্বেচ্ছাসেবী ও কমিউনিটি সেক্টরের সাথে কাজ করছি, এই স্মল গ্র্যান্ট প্রোগ্রাম হচ্ছে কেবল তারই একটি পন্থা।
ক্ষুদ্র অনুদান তহবিলটি পরিচালনা, মূল্যায়ন ও বরাদ্দ কার্যক্রম স্বতন্ত্রভাবে করছে ইস্ট এন্ড কমিউনিটি ফাউন্ডেশন। বিভিন্ন রাউন্ডে প্রতি বছর মোট ১৮০ হাজার পাউন্ড কমিউনিটি প্রকল্পগুলোতে বরাদ্দ দেয়া হবে।
৫টি মূখ্য থিম বা প্রতিপাদ্য বিষয়ের অধীনে অনুদানের জন্য বিড করতে স্থানীয় গ্রুপগুলোকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিলো। এই থিমগুলো হচ্ছে: ইনোভেশন – নতুন কোন সৃজনশীল উদ্যোগ বা উদ্ভাবনে উৎসাহিত করা, প্রিভেনশন – পাবলিক সার্ভিসসমূহের ওপর প্রভাব কমাতে তৃণমূল পর্যায়ে কার্যক্রমকে তুলে ধরা, নেইবারহুড এ্যাকশন – স্থানীয় উদ্যোগসমূহকে প্রমোট করা, কমিউনিটি কোহিজন – অর্থাৎ জনগোষ্টির প্রনোচ্ছলতার বিকাশ, সাংস্কৃতিক সুযোগগুলোর প্রচার এবং সামাজিক বিচ্ছিন্নতা হ্রাস করার জন্য সম্প্রদায়গত সংহতি, এবং পার্টনারশীপ ওয়ার্কিং – বিভিন্ন সেক্টরের মধ্যে অধিকতর কার্যকর সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে সম্মিলিতভাবে কাজ করা।
অনুদানের জন্য সফল বিবেচিত কমিউনিটি প্রজেক্টগুলোর একটি হচ্ছে পপলার ভিত্তিক লিডারস্ ইন্ কমিউনিটি’র ‘বি হার্ড’ প্রজেক্ট, যেটি ২ হাজার ৪২৫ পাউন্ড অনুদান পেয়েছে। ১৪ থেকে ১৮ বছর বয়সী ২০ জন তরুণের নেতৃত্বে বাস্তবায়িত হবে এই প্রজেক্ট। তারা নিজেরা ৪টি প্রতিপাদ্য বিষয় বাছাই করে কমিউনিটি ইভেন্টের আয়োজন করবে। এজন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়ার সাথে সম্পৃক্তদের নিয়ে এবং স্থানিয় বিভিন্ন ইস্যূ নিয়ে যে উদ্বেগ রয়েছে, তা চিহ্নিত করতে তারা প্যানেল আলোচনার আয়োজন করবে। লিডারস্ ইন্ কমিউনিটি’র ফান্ডরাইজিং অফিসার, সুনা রামাদান অনুদান লাভের খবরে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে বলেন, স্মল গ্র্যান্টস ফান্ড থেকে যে অনুদান আমরা পেয়েছি, বরায় কমিউনিটি কোহিজন বা সম্প্রদায়গত সংহতি আরো উন্নত করতে তা আমাদের সাহায্য করবে। আমাদের ‘বি হার্ড’ ইভেন্টের মাধ্যমে কিশোর তরুণ বয়সীরা গোটা কমিউনিটির জন্য অনুষ্ঠান আয়োজনে সক্ষম হবে। এর ফলে স্থানিয় বাসিন্দারা তাদের বক্তব্য তুলে ধরতে পারবেন, তারা অধিকতর সম্পৃক্ততা বোধ করবেন এবং যে এলাকায় তারা বাস করছেন, সেই এলাকার অংশ হিসেবে নিজেদের বিবেচনা করতে পারবেন।
‘সীড ফর গ্রোথ’ নামের একটি কমিউনিটি সংগঠন আইল অব ডগস্ এর সামুডা এস্টেটে অবস্থিত তাদের কমিউনিটি গার্ডেনিং প্রজেক্টের জন্য ৪ হাজার পাউন্ড অনুদান পেয়েছে।  ‘সীড ফর গ্রোথ’ এর চীফ এক্সিকিউটিভ, গ্রেগরি কোন বলেন, সামুদা এস্টেটের বর্তমান কমিউনিটি গার্ডেন ব্যবহারে স্থানিয় বাসিন্দাদের অনুপ্রাণিত করতে আমাদের সামুদা কমিউনিটি এনগেইজমেন্ট প্রজেক্ট টি পার্টি, অনানুষ্ঠানিক আলোচনা, ফোকাস গ্রুপ পরিচালনা ও প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করবে।
কেবিনেট মেম্বার ফর রিসোর্সেস এন্ড দ্যা ভলান্টারি সেক্টর, কাউন্সিলর ক্যানডিডা রোনাল্ড বলেন, ছোটখাটো এসব অনুদান কিভাবে প্রকৃত ও দীর্ঘস্থায়ি প্রভাব ফেলতে পারে, সেসম্পর্কে কমিউনিটি সংগঠনগুলোর কাছ থেকে জানতে পেরে আমরা অনুপ্রাণিত। এই প্রজেক্টগুলোর সফল বাস্তবায়ন দেখার জন্য আমি অধির আগ্রহে অপেক্ষা করছি।
কমিউনিটি ও ভলান্টারি সেক্টর বিষয়ক মেয়রের উপদেষ্টা, কাউন্সিলর আসমা ইসলাম বলেন, বরার সত্যিকারের সেরা অর্জনগুলোর একটি হচ্ছে আমাদের কমিউনিটি সংগঠনগুলোর বিভিন্ন ধরনের কার্যক্রম। তারা বৃহত্তর কমিউনিটিতে যে ভূমিকা রেখে চলেছেন, সেটা নিয়ে আমরা সকলেই গর্বিত। প্রথমবারের মতো ছোট ছোট স্থানিয় গ্রুপগুলো স্মল গ্র্যান্ট ফান্ড থেকে অনুদান পেলো।
gb
মন্তব্য
Loading...

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More