সাতক্ষীরায় ডেঙ্গু ঠেকাতে সর্বাত্মক চেষ্টা প্রশাসনের

গ্রামাঞ্চলে কোনমতেই কমছে ডেঙ্গুর ভয়াবহতা গত ২৪ ঘন্টায় জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে আরো ১১ ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে

65
gb

শাহীন গোলদার,সাতক্ষীরা জিবি নিউজ  ||

বাড়ি বাড়ি পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনার পরেও সাতক্ষীরায় নির্মূল হচ্ছে না এডিস মশার প্রজনন ক্ষেত্রক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে ডেঙ্গু রোগের প্রকোপসর্বোচ্চ প্রচারাভিযানের পরেও গ্রামীন জনসাধারণের  অসবধানতা আর অতিবৃষ্টির ফলে সৃষ্ট জলবদ্ধতাকে দায়ি করছে জেলা প্রশাসন। 

সাতক্ষীরার সিভিল সার্জন ডা. শেখ আবু শাহিন জানান,সাতক্ষীরার সাত উপজেলায় গত ২৪ ঘন্টায় জেলার বিভিন্ন হাসপাতালে আরো ১১ ডেঙ্গু রোগীর সন্ধান পাওয়া গেছে নিয়ে সাতক্ষীরায় আজ পর্যন্ত মোট ৫১১ জন ডেঙ্গু রোগীকে সনাক্ত করা হয়েছে এর মধ্যে বিভিন্ন হাসপাতালে এখনও পর্যন্ত ভর্তি রয়েছে ৩৯ জন 

চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন আরো ৩৬৭ জন এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্যত্র রেফার করা হয়েছে আরো ১০৫ জনকে 

সাতক্ষীরার জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল বলেন,ঈদের পর থেকে সাতক্ষীরাতে শহরাঞ্চলের পাশাপাশি গ্রামাঞ্চলেও এডিস মশার প্রজনন ক্ষেত্র নিধনে সকল প্রকার প্রচার প্রচারাভিযান শুরু করা হয়েছেজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এডিস মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস ও জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে র‌্যালী, বাড়ি বাড়ি পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান, লিপলেট বিতরণ সহ নানান কর্মসূচি পালনের পাশাপাশি তৃণমূল পর্যায়ে জনপ্রতিনিধিদের সাথে কয়েক দফায় বৈঠক করেও কমছে না ডেঙ্গুর প্রকোপশহরাঞ্চলে কিছুটা কমলেও  গ্রামাঞ্চলে ক্রমাগতই বেড়ে চলেছে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যাযা ভাবিয়ে তুলেছে জেলার সর্বচ্চো কর্তাকে

তবে,ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা ও সকলের ঐকান্তিক পরিশ্রমের ফলেই এডিস মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস করা সম্ভব বলে মনে করেন  বিশেষজ্ঞরা

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More