মাদ্রিদ শহরে নারায়ণগঞ্জ জেলা বাসীর উদ্যোগে এক বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত

89
gb

স্পেন প্রতিনিধি ।। জিবি নিউজ ।।

নারায়ণগঞ্জ জেলা বাসীর উদ্যোগে এক বার্ষিক বনভোজন অনুষ্ঠিত হয়েছে |কমিউনিটি সর্বস্তরের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে এক মিলন মেলায় পরিণত হয় |মাদ্রিদ শহরের অদূরে লাগুনা রুইদাতে অনুষ্ঠিত হয় বনভোজনে নারায়ণগঞ্জ জেলা বাসীর নারী পুরুষ ,শিশু-কিশোরদের আনন্দ উৎসব ছিল চোখে পড়ার মতো |গত 13 আগস্ট মাদ্রিদের বাংলাদেশ অধ্যুষিত এম্ব্যাখাদোরেস থেকে প্রায় আড়াই ঘন্টা দূরে বনভোজনের সবাই মিলিত হন |নারায়ণগঞ্জ কৃতি সন্তান একরামুজ্জামান কিরনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে |প্রধান অতিথি ছিলেন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব এস আই রবিন |কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন . জিয়াউর রহমান খান , মনোয়ার হোসেন মনু ,মাহবুবুর রহমান ঝন্টু ,জহিরুল ইসলাম নয়ন ,কে এম জহিরুল ইসলাম ,দুলাল সাফা ,সুরুজ্জামান সুরুজ , জাকিরুল ইসলাম জাকির, দবির তালুকদার আইয়ুব আলী সোহাগ ,রাসেল দেওয়ান ,নূর মুহম্মদ রিপন.. ,শফিকুর রহমান ,কাইয়ুম আহমেদ ,আব্দুল কাদের সায়েম সরকার ,,জালাল হোসেন ,ফখরুল হাসান ,রানা আহমেদ,আখতারুজ্জামান আখতার | সারাদিন ব্যাপী ছিল ,শিশু-কিশোরদের জন্য খেলাধুলার ব্যবস্থা ,বড়দের সাঁতার কাটা রশি টানাটানি, ফুটবল মহিলাদের বালিশ খেলা, দাড়িয়াবান্দা ,লুকোচুরি |পরে উপস্থিত সকলকে নিয়ে রেফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয় |বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার তুলে দেন ,আগত অতিথি বৃন্দ | নারায়ণগঞ্জ জেলা বাসীর পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন দেলোয়ার হোসেন দেলোয়ার ,আব্দুর রহমান ,মনির হোসেন ,কাজি আহসান,হাসান তারেক ,ফতেহ আহমেদ ,মুরাদ হোসেন ,জাকির হোসেন ,ফয়সাল হোসেন ,আশরাফ হুসেন ,ফারহান ইয়াসমিন সুবর্ণা | প্রধান অতিথির বক্তব্যে ,এস আই রবিন বলেন ,কমিউনিটি তে কেউ বিশৃঙ্খলা করে পার পাবে না ,এই মাদ্রিদ কমিউনিটি একদিনে তৈরি হয়নি |কমিটির উন্নয়নে ,সেবামূলক কর্মকাণ্ডে যারা এগিয়ে আসবে ,তাদের পাশে ইস্পাত কঠিন হয়ে সকলকে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি |বাংলাদেশী নতুন প্রজন্মের কাছে একটি সুন্দর ,গঠনমূলক ,আলোকিত কমিটি গঠনের সকলকে এগিয়ে আসতে হবে | সমাপনী বক্তব্যে অনুষ্ঠানবে অন্যতম আয়োজক একরামুজ্জামান কিরণ ঈদুল আযহার মত ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত হয়ে আসুন এক প্লাটফর্মে কাজ করি |অন্যায়ের কাছে কোন মাথা নত করব না ,উদার মন মানসিকতা নিয়ে এগিয়ে আসলে আমরা বুকে জড়িয়ে রাখবো |তিনি নারায়ণগঞ্জ বাসির কল্যাণে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতেও প্রস্তুত |

gb

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More