সাদুল্লাপুরে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টায় স্বামী আটক

77

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধা প্রতিনিধি//

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় সাবেক স্ত্রীকে হত্যা চেষ্টায় মামলায় স্বামী আটক। আব্দুর রহিম উদ্দিন কাজল সাবেক স্ত্রী রাশেদা বেগম (৩৫) এর পরকীয়ার জেরে ছুড়িকাঘাতে হত্যার চেষ্টা করেছেন। এ ঘটনায় স্ত্রী মামলা করলে স্বামী কাজলকে আটক করা হয়। শনিবার (৩ আগষ্ট ) সকালে সাদুল্লাপুর শহরের কাসারি পট্রিতে ঘটনাটি ঘটে। এর আগেও রাশেদা বেগম একাধিক বিয়ে করেছিল বলে জানা গেছে। স্থানীয়রা জানান, উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের হামিন্দপুর গ্রামের মৃত আশরাফ আলীর মেয়ে রাশেদা বেগম সাদুল্লাপুর বাজারের ফুটপাতে দর্জির কাজ করেন। তারই পাশে বনগ্রাম ইউনিয়নের জয়েনপুর গ্রামের গোপাল চন্দ্র সাহার ছেলে কাজল চন্দ্র সাহা একটি ক্ষুদ্র ব্যবসা করে আসে। দুজনার দোকান পাশাপাশি হওয়ার সুবাদে উভয়ে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে।এক পর্যায়ে বছর দুয়েক আগে রাশেদা বেগম বিয়ের পিড়িতে বসতে কাজল চন্দ্র সাহা হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে মুসলিম ধর্ম গ্রহন করেন। কাজলের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় আবদুর রহিম মিয়া। এর পর দুজনে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়। এদের দাম্পত্য জীবন চলাকলে রাশেদা বেগম ফের অন্য ছেলের সঙ্গে পরকীয়ায় আসক্ত হয়ে। ফলে কয়েক মাস আগে রহিম উদ্দিন কাজলকে ডিভোর্স দেয় রাশেদা বেগম। স্বামীকে তালাক দেওয়ার পর বেপরোয়া হয়ে উঠে রাশেদা। বিষয়টি মেনে নিতে না পারায় সাবেক স্বামী রহিম উদ্দিন কাজল (৩ আগষ্ট) সকালে রাশেদা বেগমকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার পেটে ছড়ি ঢুকে দেয় । এসময় আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে রাশেদাকে রক্তাক্ত অবস্থায় প্রথমে সাদুল্লাপুর পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়। সাদুল্লাপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোস্তাফিজার রহমান বলেন, ছড়িকাঘাতের ঘটনা শুনেছি। এ বিষয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করেননি। তবে রহিম উদ্দিন কাজল পালানোর সময় পীরগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে আটক করেছে বলে জানান তিনি।