মায়ের কবরের পাশে ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদছে তুবা

মাকে দাফনের পর থেকে তার শিশু কন্যা তুবার (৪) কান্না যেন থামছেই না। মায়ের কথা বলেই ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদছে সে

192
gb

মো:নাসির,বিশেষ প্রতিনিধি জিবি নিউজ ২৪ ||
রাজধানীর উত্তর বাড্ডা এলাকায় ছেলেধরা গুজবের জেরে গণপিটুনিতে নিহত তাসলিমা বেগম রেনুর (৪০) দাফন সম্পন্ন হয়েছে। রেনুকে তার বাবার বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রায়পুরের উপজেলার সোনাপুর গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

তুই কি তোর মা কীভাবে চলে গেছেন, তাও জানতে চাস মা? তোর মাও তোকে ঠিক আমার মতো প্রতিষ্ঠিত করতে স্কুলে ভর্তি করাতে চেয়েছিলেন! ওখানে হলো কি মা, কিছু মস্তিষ্ক বিবর্জিত ঠান্ডা মাথার খুনি খেলার ছলে তোর মাকে মার, মার, মার…. বলে মারতেই থাকলো… মনে করলো এটা যেন একটা পুতুল! অবিকল মানুষের চেহারার মতো কতগুলো অমানুষ শুধু মেরেই গেছে তোর অভাগিনী মাকে… তুই হয়তো তাদের কাউকে দেখলে চাচা, মামা বলে ডাকতি! হয়তো কাছে থাকলে বলতি, আমার মাকে মেরো না, আমার মাকে মেরো না.. ওই পাষণ্ডদের কানে তোর মা ডাক পৌঁছাত কি-না তাতে যদিও সন্দেহ আছে আমার। ওই অমানুষগুলো একটিবারের জন্য তোর কথা ভাবেনি মা! ওদের অনেকের ঘরেই তোর মতো তুবা আছে। ফুলের মতো সাজিয়ে রাখে নিজেদের তুবাকে। তুই তুবাকে নিয়ে ওদের ভাবনার একটুকুও সময় নেই মা।

মাকে দাফনের পর থেকে তার শিশু কন্যা তুবার (৪) কান্না যেন থামছেই না। মায়ের কথা বলেই ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে কাঁদছে সে।
মা ফিরে আসবে মিথ্যা সান্ত্বনায় কিছু সময়ের জন্য কান্না থামানো হলেও ফের কাঁদছে তুবা।
মা ড্রেস নিয়ে কখন ফিরবে তা জিজ্ঞাসা করছে বার বার। তার কান্নায় শোক ছড়িয়ে শোকের মাতম চলছে রেনুর স্বজনদের মধ্যেও।
তুবার ও তার ১১ বছরের ভাইয়ের লেখাপড়ার দায়িত্ব নিয়ে রেনু হত্যায় সুষ্ঠু বিচার পেতে পরিবারটিকে আইনি সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন লক্ষ্মীপুর-২ আসনের এমপি কাজী শহীদ ইসলাম পাপুল।

তিনি বলেন, আজ থেকে তুবা ও তার ভাই বড় হবে আমার পরিচয়ে। তারা দু’জনই আমার সন্তান। তাদের পড়ালেখা থেকে শুরু করে ভবিষ্যৎ নিয়ে যত ভাবনা আমার। এ হত্যার বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক সে দাবি আমারও।
তিনি আরও বলেন, আপনারা গুজবে কান দেবেন না। ছেলেধরা সন্দেহে কাউকে গণপিটুনি দিয়ে অপরাধ হাতে তুলে নেবেন না।
প্রয়োজনে সন্দেহ হলে পুলিশকে জানানোর পরামর্শ দিয়েছেন ।

This website uses cookies to improve your experience. We'll assume you're ok with this, but you can opt-out if you wish. Accept Read More