“গ্রাম বাংলায় দিন বদলের ছোয়া” প্রতিটি মানুষের আর্থিক স্বচ্ছলতা বৃদ্ধি পাওয়ার কারণে ফকিরহাট উপজেলা থেকে ভিজিএফ এর ১১,৩৯৫টি কার্ডের ১৭০.৯২৫ মেঃ টন চাউল ফেরৎ

182
gb

 

পি কে অলোক,ফকিরহাট।
গ্রাম বাংলায় দিন বদলের ছোয়া, প্রত্যন্ত গ্রামীন জনপদে প্রতিটি মানুষের আর্থিক স্বচ্ছলতা বৃদ্ধি পাওয়ার
কারণে এবং দারিদ্রতা হ্রৃাস করন অব্যাহত থাকায় বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলা থেকে এবারও ভিজিএফ এর
১১,৩৯৫টি কার্ডের চাউল ফেরৎ প্রদান করা হয়েছে। টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যমাত্রা ১নম্বর এবং ২নম্বর অভিষ্ট অর্জন এ
প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দ্রæততার সহিত সুসম্পন্ন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জানা গেছে,ফকিরহাট উপজেলার গ্রামীন
জনপদের প্রতিটি মানুষের আর্থিক স্বচ্ছলতা বৃদ্ধি পাওয়াসহ দরিদ্রতা কমে যাওয়ায় এবারও ৮টি ইউনিয়ন থেকে
সর্বমোট ১১,৩৯৫টি কার্ডের সমপরিমাণ ১৭০.৯২৫ মেঃ টন চাউল ফেরৎ দেওয়া হয়। গত অর্থ বছরেও ১০হাজার ৭শত
১৯টি কার্ডের সমপরিমান ২১৪,৩৮০ মেঃ টন চাউল ফেরৎ দেওয়া হয়। যা সারাদেশের মধ্যে এটিই নজিরবিহীন।
উপজেলার স্থানীয় সরকারের প্রতিষ্ঠান সমুহের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরা স্বচ্ছতার সহিত উপকারভোগী
নির্বাচন সম্পন্ন করার কারনে এই বিপুল পরিমান ভিজিএফ কার্ডের চাউল ফেরৎ দেওয়া সম্ভব হয়েছে।
অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে, সারা দেশের মধ্যে সর্ব প্রথম বেতাগা ইউনিয়ন পরিষদ স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সহিত
উপকারভোগী নির্বাচন সুসম্পন্ন করে, চাহিদা না থাকায় ভিজিএফ কার্ডের চাউল ফেরৎ দিয়ে একটি নজির
বিহীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করে। এরই ধারাবাহিকতায় উক্ত ইউনিয়ন পরিষদ ধারাবাহিক ভাবে বেশ কয়েক বছর চাহিদা না
থাকায় স্বচ্ছতা আনায়ন করতে তাদের অতিরিক্ত চাউল ফেরৎ দিয়ে আসছে। উক্ত ইউনিয়নের মোট খানার সংখ্যা
৪২৫৭টি, এর মধ্যে ফেয়ার প্রাইজ ১০৮৬টি, ভিজিডি ২৮৫টি ও ভিজিএফ ৮৫১টি পরিবার। উপজেলা প্রকল্প
বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইদা দিলরুবা সুলতানা জানান, ৮টি ইউনিয়ন থেকে সর্বমোট ১১,৩৯৫টি কার্ডের
সমপরিমাণ ১৭০.৯২৫ মেঃ টন চাউল ফেরৎ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে বেতাগা ইউনিয়নের ২৮৫১টি কার্ডের মধ্য হতে
২০০০টি কার্ড, লখপুর ইউনিয়ন থেকে ৪৩২৯টি কার্ডের মধ্য হতে ১৮২৯টি কার্ড, পিলজংগ ইউনিয়ন হতে
৪০২৪টি কার্ডের মধ্য হতে ১৩৭৪টি কার্ড, ফকিরহাট সদর ইউনিয়ন থেকে ৫৩১৮টি কার্ডের মধ্য হতে ২৩১৮টি
কার্ড, বাহিরদিয়া-মানসা ইউনিয়ন থেকে ৩১১২টি কার্ডের মধ্য হতে ৮০০টি কার্ড, নলধা-মৌভোগ
ইউনিয়ন থেকে ৩৫১২টি কার্ডের মধ্য হতে ১০০০টি কার্ড, মুলঘর ইউনিয়ন থেকে ৩১৬৪টি কার্ডের মধ্য হতে
১১৬৪টি কার্ড ও শুভদিয়া ইউনিয়ন থেকে ২৯১০টি কার্ডের মধ্য থেকে ৯১০টি কার্ড সহ সর্বমোট
১১,৩৯৫টি কার্ডের চাউল ফেরৎ প্রদান করা হয়। লখপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল হোসেন এর সাথে
কথা বলা হলে তিনি বলেন, দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গঠন করতে না পারলে এসডিজি বাস্তবায়ন করা সম্ভব নয়, তাই
চাহিদার তুলনায় এই ইউনিয়নে বরাদ্ধ বেশি পাওয়ায় চাহিদা মোতাবেক কার্ড রেখে বাকি কার্ড ফেরৎ দেওয়া
হয়েছে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাঃ শাহানাজ পারভীন এর সাথে আলাপ করা হলে তিনি বলেন, স্বঃ
স্বঃ ইউনিয়ন পরিষদের জনপ্রতিনিধিরা উপকারভোগী বাছাই প্রক্রিয়া অতি স্বচ্ছতার সাথে তাদের দায়িত্ব পালন
করেছেন, যে কারণে অতিরিক্ত চাউল ফেরৎ দেওয়া সম্ভব হয়েছে। তিনি সকল কাজ স্বচ্ছতার সাথে করার জন্য সকলের
প্রতি আহবান জানান। এবিষয়ে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ স্বপন দাশ এর সাথে আলাপ করা
হলে তিনি বলেন, দারিদ্রতা হ্রৃাস পাওয়ায় এবং ফকিরহাট উপজেলার স্থানীয় সরকারের প্রতিষ্ঠান সমুহের বিশেষ করে
ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচিত সকল প্রতিনিধিরা অত্যন্ত স্বচ্ছতার সহিত উপকারভোগী নির্বাচন সুসম্পন্ন
করার কারনে এই বিপুল পরিমানে ভিজিএফ কার্ডের চাউল ফেরৎ দেওয়া সম্ভব হয়েছে। টেকসই উন্নয়নের লক্ষমাত্রা ১
এবং ২অভিষ্ট অর্জন এ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে দ্রæততার সহিত সম্পন্ন হবে বলেও তিনি প্রত্যাশা করেন। ###