ঈদের ছুটিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিনোদন বেড়ানোয় হতাশ মানুষ: নেই বিনোদন কেন্দ্র

46

 

জাকির হোসেন পিংকু,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:
ঈদের ছুটিতে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিনোদনের আশায় ছুটে বেড়াচ্ছে মানুষ। কিন্তু বিনোদন কেন্দ্রের অভাবে মানুষের সেই আশা ঠিকমত পূরণ হচ্ছে না। জেলাব্যাপী সরকারী বা বেসরকারী উল্লেখযোগ্য কোন বিনোদন কেন্দ্র গড়ে না ওঠায় হতাশ বিনোদন প্রিয় মানুষ। বিভিন্ন বয়সী বিভিন্ন ¤্রিেণ-পেশা’র মানুষের মধ্যে বেড়ানোর তীব্র ইচ্ছা থাকলেও তা মূলত: তা অপূর্ণই থেকে যাচ্ছে অবকাঠামোর অভাবে। বাধ্য হয়েই মানুষ দু’একটা যা বেড়ানোর মত স্থান রয়েছে সেগুলিতেই ভীড় করছে। এবারে তো ঈদের দিন থেকেই বিশেষ করে তরুন-তরুনী আর শিশুরা বেড়িয়ে পড়ে বেড়াতে। ভীড় করে বিভিন্ন স্পটে।

 


জেলার অন্যতম বিনোদন স্পটে পরিনত হয়েছে জেলা শহরের দুপ্রান্তে অবস্থিত মহানন্দা নদীর উপর নির্মিত দুটি সেতুর দু’ধারের নদী তীর। এসব স্থানে রয়েছে চটপটির দোকান ও শিশুদের খেলনা বিক্রেতারা। কিছু সূযোগ রয়েছে নদীতে ঝুঁকি নিয়ে খেয়া নৌকায় ভ্রমণের। কিন্তু নেই কোন রাইড। নিরাপত্তা ব্যবস্থাও যথেষ্ট নয়।
সদর উপজেলার বরেন্দ্রাঞ্চলের বাবুডাইং এলাকায় রয়েছে ক্ষুদ্র নৃ গোষ্ঠী এলাকায় ছোট টিলাময় হালকা বনভুমি। শিবগঞ্জ উপজেলার সোনামসজিদ এলাকায় রয়েছে মধ্য যুগের মুসলিম শাসনামলে নির্মিত সোনামসজিদসহ কয়েকটি মসজিদ ও স্থাপনা। এই এলাকায় রয়েছে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম স্থলবন্দর। অধুনা বেসরকারী উদ্যেগে এ এলাকায় স্থাপিত হয়েছে কয়েকটি ছোট পার্ক ও পিকনিক স্পট। এছাড়া গোমস্তাপুর,নাচোল ও ভোলাহাট উপজেলায় রয়েছে হাতে গোনা কয়েকটি নৈসর্গিক আর বিশাল আমবাগান ঘেরা স্থান।
এবারের ঈদে ওইসব স্থানতো বটেই শহরের কাছাকাছি প্রাকৃতিক শোভামন্ডিত যে কোন স্থানকেই মানুষ বেছে নিয়েছে বেড়ানোর জন্য। চাঁপাইনবাবগঞ্জের সদর আসনের সাবেক সাংসদ ও জেলা আ’লীগের সেক্রেটারী আব্দুল ওদুদ বলেন,প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করে সদরে আধুনিক ট্যুরিষ্ট স্পট করার আশ্বাস পাওয়া গেছে। দ্রুতই এটি নির্মাণ করা হবে। এ ছাড়া আম কেন্দ্রীক পর্য়টন বিকাশেও ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে একাধিকবার প্রশাসনের পক্ষে বলা হয়েছে। চালু করা হবে বন্ধ হয়ে থাকা সোনামসজিদ পর্যটন মোটেল। জেলাবাসীর দাবী, বিনোদন বেড়ানো এখন মানুষের অন্যতম চাহিদা। তাই অবিলম্বে জেলার বিভিন্ন স্থানে পর্যটন ও বেড়ানোর জন্য অবকাঠামো নির্মাণ করা হোক। ###

মন্তব্য
Loading...