যুদ্ধকালীন সাহসিকতায় পুরস্কার পাচ্ছেন উইং কমান্ডার অভিনন্দন

152

যুদ্ধকালীন সাহসিকতার জন্য ভারতীয় বিমান বাহিনীর পাইলট উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে বীরচক্র পুরস্কার দেয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। ভারতীয় গণমাধ্যমে এনডিটিভি বলছে, পাকিস্তানের এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভূপাতিত করে বীরত্ব প্রদর্শন করায় তাকে এ পুরস্কার দেয়া হবে।

এছাড়া পাকিস্তানের ভূখণ্ডে বোমা হামলা চালানোর জন্য ১২ মিরাজ ২০০০ যুদ্ধবিমানের পাইলটদের বায়ু সেনা মেডেল দেয়ারও সুপারিশ করা হয়।

যুদ্ধকালীন সাহসিকতার জন্য ভারতীয় সেনাবাহিনীর তৃতীয় সর্বোচ্চ পদক হচ্ছে বীরচক্র। এর আগে পরমবীরচক্র ও মহাবীর চক্র নামের দুটি পদক রয়েছে।

এদিকে অভিনন্দন বর্তমানকে শ্রীনগরের বাইরে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়ান খবরে জানা গেছে, তার নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ থাকলেও তাকে পশ্চিম সেক্টরে পাকিস্তান সীমান্তের একটি বিমান ঘাঁটিতে পদায়ন করা হয়েছে।

দেশটির সরকারি সূত্র জানিয়েছে, উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে নতুন জায়গায় পদায়নের আদেশ জারি করা হয়েছে। শ্রীনগরের বিমান ঘাঁটি থেকে তিনি দ্রুতই সেখানে যাবেন।

নতুন যে বিমান ঘাঁটিতে তাকে পদায়ন করা হয়েছে, সেটি একটি যুদ্ধঘাঁটি। অভিনন্দনের নিরাপত্তার স্বার্থে সেটির নাম গোপন রাখা হয়েছে।

যদি যুদ্ধবিমান চালানোর ক্ষেত্রে তাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়, তবে নিয়মিতভাবেই তিনি উড্ডয়নের কাজ করে যাবেন।

পাকিস্তানে আটক হওয়ার পর ইমরান খানের শান্তির নির্দশন হিসেবে নিজে দেশে ফেরত যাওয়ার সুযোগ পান তিনি। ভারতে পরবর্তী দুই সপ্তাহ তাকে জিজ্ঞাসাবাদের ওপর রাখা হয়। এপর মধ্য মার্চের দিকে তাকে ছুটিতে যাওয়ার সুযোগ দেয়া হয়।

আকাশযুদ্ধের সময় পাকিস্তানি বিমান বাহিনীর গুলিতে অভিনন্দনের মিগ-২১ বিসন যুদ্ধবিমান ভূপাতিত হলে তিনি আটক হয়েছিলেন।

মন্তব্য
Loading...