যশোরে দুই লাখ টাকা চুক্তিতে ব্যবসায়ীকে হত্যা

142
gb

ইয়ানূর রহমান  ||

যশোর শহরে ব্যবসায়ী মহিদুল ইসলাম শাফাকে ব্যবসায়িক দ্ব›েদ্বর কারণে দুই লাখ টাকা চুক্তিতে খুন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে যশোরের ডিবি পুলিশ।

এই হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে পুলিশ রানা মোল­া (১৯) ও রাকিব (১৯) নামে দুই যুবককে আটক করেছে। একইসঙ্গে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরিটিও উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (৬ জানুয়ারি) বিকেলে যশোরের ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে।

সোমবার দুপুরেদিকে ডিবি কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে যশোর ডিবি পুলিশের ওসি মনিরুজ্জামান বলেন, ‘ব্যবসায়ীক দ্বন্দ্বে দুই লাখ টাকার চুক্তিতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ব্যবসায়ী শাফাকে ১ জানুয়ারি সন্ধ্যায় খুন করানো হয়। এ ঘটনায় পরদিন অজ্ঞাত আসামি করে কোতোয়ালি থানায় মামলা (নম্বর-০২/০২.০১.১৯) দায়ের করা হয়। যশোরের পুলিশ সুপার মামলাটি তদন্তের জন্য ডিবিতে স্থানান্তর করেন। এরপর তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে হত্যাকারীদের শনাক্ত করে রানা ও রাকিবকে আটক করা হয়।

তিনি জানান, আটককৃতদের দেওয়া তথ্যমতে, শহরের গাড়িখানা রোড এলাকা থেকে হত্যকাণ্ডে ব্যবহৃত ছুরিটি উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা দুই লাখ টাকা চুক্তিতে এ হত্যাকাণ্ড ঘটায় বলে স্বীকার করেছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের পরিচয়ও জানিয়েছে তারা। তাদের আটকে পুলিশি অভিযান চলছে।
আটক রানা ও রাকিব যথাক্রমে যশোর শহরের শংকরপুর ছোটনের মোড় এলাকার আকরাম মোল­া ও লিটন বাবুর ছেলে।

গত ১ জানুয়ারি সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে শহরের ঈদগাহ মোড়ে এইচএন এন্টারপ্রাইজের মালিক মহিদুল ইসলাম শাফা খুন হন। অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তাকে গলা কেটে হত্যা করে। নিহত সাফা যশোরের শার্শা উপজেলার ধান্যখোলা গ্রামের নবিস উদ্দিনের ছেলে। তিনি যশোর শহরের খালধার রোডে ভাড়া বাসায় থাকতেন।