দেশে আনা হলো সৈয়দ আশরাফের মরদেহ

কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সহযোদ্ধা, সহকর্মী এবং ভক্ত-অনুরাগীরা

89
সৈয়দ নাজমুল হাসান, ঢাকা।।

ব্যাংককের একটি হাসপাতালে মারা যাওয়া আশরাফের মরদেহ শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকার হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে পৌঁছায়। তার মরদেহ গ্রহণে সেখানে আগে থেকেই অপেক্ষায় ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ রাজনৈতিক সহযোদ্ধা, সহকর্মী এবং ভক্ত-অনুরাগীরা।

সন্ধ্যা সোয়া ৬টায় আশরাফের কফিন উড়োজাহাজ থেকে নামানো হয়। সেখানেই তাকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নেতাকর্মীরা। জাতীয় পতাকা দিয়ে ঢেকে দেওয়া হয় এই মুক্তিযোদ্ধার কফিন। এরপর সৈয়দ আশরাফের মরদেহ আনা হয় ঢাকার বেইলি রোডে তার সরকারি বাসভবনে। বিকাল থেকেই সেখানে অপেক্ষায় ছিলেন নেতাকর্মীসহ সহ্রসাধিক মানুষ।

বেইলি রোডে তার সরকারি বাসভবনের ভেতরের খোলা জায়গায় সামিয়ানা টাঙিয়ে সৈয়দ আশরাফের কফিন রাখা হয়। এরপর সারি ধরে দাঁড়িয়ে তাকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সর্বস্তরের মানুষ, যাদের মধ্যে দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাকর্মী, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ নানা শ্রেণির পেশার মানুষ ছিলেন।

সততা, নির্লোভ মানসিকতা এবং রাজনৈতিক বিচক্ষণতায় নিজের দলের নেতাকর্মীদের পাশাপাশি রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের কাছেও শ্রদ্ধার পাত্র হয়েছিলেন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। ব্যাংককের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত রোববারের ভোটে কিশোরগঞ্জ-১ আসন থেকে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন তিনি।

সেখানে পরাজিত প্রার্থী বিএনপি নেতা রেজাউল করিম চুন্নুও তার কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। কিশোরগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক শরীফুল আলমও ছিলেন তার সঙ্গে।

সন্ধ্যা ৭টার পর বেইলি রোডের বাসায় পৌঁছায় সৈয়দ আশরাফের মরদেহ। সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদনের পাশাপাশি শেষবারের মতো এই নেতার মুখ দেখেন সহকর্মী, সহযোদ্ধা ও স্বজনরা। সৈয়দ আশরাফের জন্য বেইলি রোডের ওই বাসায় একটি শোক বইও খোলা হয়েছে।

ওই বাসা থেকে রাত পৌনে ৯টায় আশরাফের কফিন নেওয়া হয় সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে, সেখানে হিমঘরে রাখা হবে মরদেহ।

রোববার সকাল সাড়ে ১০টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় সৈয়দ আশরাফের জানাজার পর হেলিকপ্টারে করে মরদেহ নেওয়া হবে তার গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জে; দুপুর ১২টায় কিশোরগঞ্জ পুরাতন স্টেডিয়াম মাঠে জানাজা হবে।

এরপর দুপুর ২টায় ময়মনসিংহের আঞ্জুমান ঈদগাঁ মাঠে জানাজার পর আশরাফের মরদেহ ঢাকায় এনে আসরের পর বনানী কবরস্থানে দাফন করা হবে।

মন্তব্য
Loading...