‘এমন পারফরমেন্স করলে লজ্জা ছাড়া কিছু জুটবে না’

492
gb

২০১৫ বিশ্বকাপ থেকে বাংলাদেশের ক্রিকেটের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী। সম্প্রতি ওয়ানডে ফরম্যাটের পাশাপাশি টেস্ট ফরম্যাটেও ভালো করছে বাংলাদেশ।

বিদেশের মাটিতে শ্রীলঙ্কা এবং দেশের মাটিতে শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়াকে হারানোর সুখস্মৃতি নিয়েই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে গিয়েছিল বাংলাদেশ। প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে ৯০ রানে অলআউট হওয়ার পর এতদিনের অর্জিত সব মান সম্মান খোয়ানোর শঙ্কা দেখছেন টাইগার ক্যাপ্টেন মুশফিকুর রহিম!

টসে জেতার পর ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত, বিবর্ণ বোলিং আর বাজে ব্যাটিংয়ে ৩৩৩ রানের বিশাল ব্যবধানে পচেফস্ট্রুম টেস্ট হেরে গেছে বাংলাদেশ।  ম্যাচ পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে সতীর্থদের সতর্ক করে তিনি স্পষ্ট করেই বলেছেন, এমন পারফরমেন্স করলে লজ্জা ছাড়া আর কিছু জুটবে না কপালে! দুই-তিন বছর ভালো খেলে দল যে সম্মান অর্জন করেছে, তা খোয়াতে সময় লাগবে না।

মুশফিক বললেন, ‘দ্বিতীয় টেস্টে আমাদের আরেকটি সুযোগ আছে। ওই ম্যাচে অবশ্যই ভালো কিছু করে দেখাতে হবে। নয়তো এরকম লজ্জা ছাড়া আমরা কিছুই নিয়ে যেতে পারব না। চেষ্টা থাকবে ঘুরে দাঁড়িয়ে যেন আমাদের সেরাটা দিতে পারি। গত ২-৩ বছর ধরে আমরা যে সম্মান অর্জন করেছি সেটা যেন বজায় রাখতে পারি। সেটা যেন না হারাই সেই চেষ্টাই থাকবে।

চতুর্থ দিন শেষে জানা গিয়েছিল আজ পঞ্চম দিনের খেলায় থাকছেন না চোট আক্রান্ত দক্ষিণ আফ্রিকার সেরা বোলার মরনে মরকেল। এতে কিছুটা আশা দেখছিল বাংলাদেশ। কিন্তু পেস সেনসেশন কাগিসো রাবাদা আর স্পিনার কেশব মহারাজ মিলেই ডোবান বাংলাদেশকে। এই ম্যাচে জয়টা অসম্ভব ছিল বলে মনে করেন মুশফিক। তবে ড্র করাটা তার কাছে মোটেও অস্বাভাবিক মনে হয়নি। উইকেটও তার কাছে কঠিন মনে হয়নি। এই উইকেটেই রানের ফোয়ারা ছুটিয়েছে স্বাগতিক দল। তাহলে সমস্যাটা কোথায়? দ্বিতীয় টেস্টের আগে সেটাই খুঁজে বের করতে হবে টাইগারদের।