Bangla Newspaper

বাংলাদেশি মুসলিমদেরকে বেছে বেছে বিতাড়ন করা হবে-বিজেপি-র সভাপতি

30

জিবি নিউজ 24 ডেস্ক //

ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপি-র সভাপতি অমিত শাহ বলেছেন, ‘বিজেপি’র সঙ্কল্প হল, এদেশে একজনও বাংলাদেশি মুসলিম অনুপ্রবেশকারীকে থাকতে দেওয়া হবে না। তাদেরকে বেছে বেছে এখান থেকে বিতাড়ন করা হবে।’

গতকাল (মঙ্গলবার) বিজেপিশাসিত রাজস্থানের জয়পুরে দলীয় কর্মীদের এক সভায় তিনি ওই মন্তব্য করেন।

বিশ্লেষকদের মতে, আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে বিজেপি সরকার স্পর্শকাতর ধর্মীয় ইস্যু নিয়ে খেলছে। কিন্তু ধর্মীয় বিভাজন তৈরির মাধ্যমে নির্বাচনে ফায়দা লুটা যাবে না বলেই তাদের মত।

বিশ্লেষকরা বলেন, ২০১৯ সালের নির্বাচনি বৈতরণী পার হওয়ার জন্য বিজেপির কাছে কোনো রাজনৈতিক এজেন্ডা নেই। তারা ২০১৪ সালের নির্বাচনে মানুষকে যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, তার পাঁচ শতাংশও পূরণ করতে পারেননি। আজকে ধর্মীয় মেরুকরণের মধ্য দিয়ে হিন্দু-মুসলিমের বিভাজন করা ছাড়া তাদের কাছে কোনো উপায় নেই।

তাদের মতে, ভারতের মানুষ বিগত উপনির্বাচনগুলোতে তাদের দ্বিমুখী রাজনীতিকে বুঝতে পেরেছেন। সেই একই চাতুরিতে তাদের কোনো ফল হবে না একথা তাদের মনে রাখা উচিত।

বিজেপির এই ধরনের নীতিকে ভারতের সংবিধান, ভারতের আদালত ও আইনের পরিপন্থী। কেননা সেসবে মুসলিমদেরকেও ভারতের নাগরিক বলে স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে।

ওদিকে, লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে পশ্চিমবঙ্গে ন্যাশনাল রেজিস্ট্রার ফর সিটিজেনস (এনআরসি) বা নাগরিক তালিকার দাবি তুলে ধরতে এবার জেলায় জেলায়ও হ্যান্ডবিল বিতরণ শুরু করেছে ভারতের ক্ষমতাসীন পার্টি বিজেপি।

চার পাতার হ্যান্ডবিলটির মূল বক্তব্য হলো ‘বাংলাদেশ থেকে আসা’ মুসলিমদের ফেরত পাঠাতে হবে।

হ্যান্ডবিলে বলা হয়েছে, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও উত্তরবঙ্গকে যদি ইসলামি মৌলবাদী আধিপত্য ও দখলের হাত থেকে বাঁচাতে হয় তবে এনআরসি করে ‘বাংলাদেশি মুসলমান’দের চিহ্নিত করে তাদেরকে বিতাড়িত করতে হবে।

Comments
Loading...