রক্তাক্ত হাতিয়াঃ গণমানুষকে বাঁচাতে স¤্রাজ্যের অবসান ঘটাতে হবে

178
gb

বিশেষ প্রতিবেদক,
নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলাহাতিয়া। সাগর কন্যা নামে খ্যাত এ হাতিয়াদিন দিন হয়ে উঠছে বসবাস অনুপযোগী
জনপথে। গত তিন দশক চিহ্নিত একটি মহলেরস¤্রাজ্যে রুপান্তরিত হয়েছে হাতিয়া। শাষন,
শোষন, সবকিছুই নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে স¤্রাজ্যকর্তিক। আর এই স¤্রাজ্যের একক অধিপতিসাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলী। এখানে
ব্যাক্তির ইচ্ছাই বড়। দলীয় বা সংগাঠনিককোন কর্ম বা সিদ্ধান্তই যেন এই উপজেলায়
টিকে থাকতে পারে না। বলতে বলতে খুন,ধর্ষন, রাহাজানি এখানকার নিত্যনৈভিত্তিকব্যাপার। ব্যাক্তি আগ্রাসিতার কারনে বি এন
পির নেতা কর্মীদের দিয়ে পেটানো হচ্ছেআওয়ামীলীগের মহানেতা দাবিদার স¤্রাজ্যের
অধিপতির নির্দেশে। বিভিন্ন সূত্রে জানাগেছে গত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনেসোনাদিয়া ইউনিয়ন থেকে বি এন পির
প্রার্থী হয়ে বিপুল ভোটে পরাজিতজোবায়ের নামে এক বি এন পি নেতাযোগদেন মোহাম্মদ আলীর সাথে। আর এই
জোবায়ের এর বিরুদ্ধে উঠেছেআওয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের নির্যাতনের
অভিযোগ। হাতিয়ার আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা জানান, এই জোবায়ের প্রতিদিনদুই চার জন করে আওয়ামীলীগের নেতা
কর্মীদের পেটাচ্ছে। এরকম অসংখ্য অনিয়মহাতিয়ায় নিয়মে পরিনত হয়েছে। হাতিয়ারচেয়ারম্যান ঘাট দিয়ে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা আসা যাওয়া করতে পারে না।মোহাম্মদ আলী সমর্থকরা তাদের উপরনির্যাতন চালায় বলে অভিযোগ রয়েছে। এই
চেয়ারম্যান ঘাট নিয়ন্ত্রনকারীরাই হুননিইউনিয়নের একটি মেয়েকে গণধর্ষণ করে।যাদের বিরুদ্ধে গন ধর্ষণের মামলা হয়েছে,তারাই স্থানীয় পুলিশ ক্যাম্পে বসে মামলাবাদীদের হয়রানি করছে। উল্টোরথের হাতিয়া। শত
অনিয়ম নির্যাতনের বিরুদ্ধে বাঁচতে এবংআওয়ামীলীগ নেতা কর্মীদের অধিকার রক্ষা
করতে উপজেলা আওয়ামীলীগ গত ২৮ জানুয়ারীএক বিশেষ বর্ধিত সভার আয়োজন করে। এইবর্ধিত সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগেরসিনিয়র সহ- সভাপতি পদে বিশিষ্ট

সমাজসেবক মাহমুদ আলী রাতুলের নামপ্রস্তাব করে এবং আগামী সংসদ সদস্যনির্বাচনে এই নির্বাচনী এলাকা থেকে
আওয়ামীলীগ দলীয় একক প্রার্থী হিসেবেমাহমুদ আলী রাতুলের নাম প্রস্তাব করা হয়।
উপজেলা আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভার এই সবপ্রস্তাবনা রেজুলেশন আকারে কেন্দ্রিয়আওয়ামীলীগ ও জেলা আওয়ামীলীগে প্রেরণ করাহয়। গত ৩ ফেব্রুয়ারী হাতিয়া উপজেলাআওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ ও মাঠ পর্যায়েরনেতা কর্মীরা জেলা সদরে আওয়ামীলীগ
কার্যালয়ে জেলা সাধারন সম্পাদক সংসদসদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর সাথে সাক্ষাত
করেন। সাক্ষাতে তারা হাতিয়ার আলীসা¤্রাজ্যের নির্যাতনের বিশদ বিবরন তুলেধরেন। সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীঅত্যান্ত ধৈর্য্য সহকারে নেতা কর্মীদেরঅভিযোগ শোনেন এবং আবেগপ্রবন হয়পড়েন। বিমুর্ষ এবং অমানবিক নির্যাতনের
বর্ননা শুনে একরামুল করিম চৌধুরী কিছুশান্তনা মূলক ও কিছু সংগাঠনিক দিকনির্দেশনা প্রদান করেন। একরাম চৌধুরীর
দিক নির্দেশনা মূলক বক্তব্যে হাতিয়াআওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা উজ্জীবিত হলেও
খুশী হতে পারেননি আধিপত্য বাদি ওসা¤্রাজ্যবাদীরা। তারা সংসদ একরামুল করীমচৌধুরীর বক্তব্যকে ভিন্ন খাতের প্রবাহিতের
চেষ্টায় নাম সর্বস্ত্র কিছু অনলাইনমিডিয়ায় মন গড়া সংবাদ প্রকাশ করে। অবশ্যপরবর্তিতে এসব সংবাদ সমূহ প্রত্যাহার ওকরে নেওয়া হয়। আগামী জাতীয় সংসদনির্বাচনকে কেন্দ্র করে নোয়াখালী আওয়ামীরাজনীতিতে সক্রীয় হচ্ছে একটিপ্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী। যারা দলের প্রকৃতনেতা কর্মীদের নানাবিধ ভাবে বিব্রত করেনিজেদের ফায়দা হাসিল করতে চায়। কিন্তু
আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীদের সচেতনতায়তাদের সে স্বপ্ন সফল হবে না বলে দাবি বিজ্ঞমহলের। বিশেষ করে হাতিয়ার চলমান সা¤্রাজ্যের
পতন ঘটে প্রতিষ্ঠিত হবে গন মানুষের শাষন-যেখানে মাহমুদ আলী রাতুলের নেতৃত্বেহাতিয়ার লক্ষ্য লক্ষ্য জনতা থাকবে নিরাপদে। এমনপ্রত্যাশা করেই জেলার রাজনৈতিক বোদ্ধারা।