ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের হোটেল শ্রমিক হত্যা, ৩ কিশোর গ্রেফতার

ফলোআপ

704
gb

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি :

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে হোটেল শ্রমিক মান্না হত্যাকা-ের সাথে জড়িত তিন কিশোর অপরাধীকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। গ্রেফতারকৃত হলো  কালীগঞ্জ উপজেলার বেলাট দৌলতপুর গ্রামের শুকুর আলী ছেলে আল-আমিন হোসেন (১৫), একই গ্রামের সখের আলী বিশ্বাসের ছেলে ইব্রাহিম হোসেন (১৫) ও মহিষাহাটি গ্রামের শ্রী জসিম কুমারের ছেলে ইমন কুমার (১৩)। সোমবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে নিহত মান্নার পিতা খোকন ড্রাইভার বাদি হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের নামে আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। মামলা দায়েরের পর সোমবার  দিনগত রাতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করে। আদালতে আসামিরা হত্যাকা-ের দায় স্বীকার করে সহযোগিদের নাম প্রকাশ করেছে বলে জানিয়েছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই নিরব হোসেন। তিনি আরো বলেন, গত ৬ জানুয়ারি দিনগত রাতে কালীগঞ্জ উপজেলার বারবাজার এলাকার বেলাট দৌলতপুর গ্রামের একটি কালভাটের নীচ থেকে চৌগাছা উপজেলার জামিরা গ্রামের খোকন ড্রাইভারের ছেলে হোটেল শ্রমিক মান্না’র লাশ উদ্ধার করে। তার সমস্থ শরীরে কাঁদা-মাটি মাখা ছিল। এস আই নিরব হোসেনের ধারণা গলায় গামছা পেচিয়ে তাকে কাঁদা মাটির মধ্যে শ্বাসরুদ্ধ হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের পিতা বাদি হয়ে অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। যার  মামলা নং-৬। তারিখ-০৮/০১/২০১৮ ইং। মামলা দায়েরের পর পুলিশ কিশোর অপরাধী আল-আমিন হোসেন (১৫), ইব্রাহিম হোসেন (১৫) ও ইমন কুমার (১৩) কুমারকে নিজ নিজ বাড়ি থেকে গ্রেফতার করেন। ঝিনাইদহ অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক বেগম ফাহমিদা জাহাঙ্গীর এর সামনে আসামিরা হত্যার দায় স্বীকার করে সহযোগিদের নাম প্রকাশ করেছে। তিনি আরো জানান, আসামির সব কিশোর হওয়ায় তাদের কিশোর আদালতে বিচার হবে।কালীগঞ্জ থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান খান বলেন, হোটেল শ্রমিক মান্না হত্যাকা-ের ঘটনায় পুলিশ তিন কিশোর অপরাধেেীক গ্রেফতার করেছে। তারা হত্যার দায় স্বীকার করে আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে।