কে ছিলেন ইন্তিফাদার সেই কালো পোশাক পরা তরুণী?

700
gb

জিবিনিউজ24 ডেস্ক:হলুদ স্যান্ডেল হাতে নিয়ে কালো পোশাকের একজন ফিলিস্তিনি নারী ইসরায়েলি পুলিশের দিকে পাথর ছুড়ে মারছে, সারা বিশ্বে ছড়িয়ে পড়া এই ছবিটি ৩০ বছরের পুরনো। ছবিটি তুলেছিলেন আলফ্রেড ইজোবযাদেহ।দখলকৃত পশ্চিম তীরের বেইট সাহোর গ্রামে ওই সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটেছিল। কিন্তু ছবির সেই নারীর পরিচয় এই এত বছরেও কারো জানা ছিল না। তবে এই এত বছর পর তার পরিচয় জানা গেছে। তার নাম মিশেলাইন আওডা। ইসরায়েলি দখলদারিত্বের প্রতিবাদে ১৯৮৭ সালে ইন্তিফাদা বা গণজাগরণের আন্দোলন শুরু করে ফিলিস্তিনিরা। ওই আন্দোলনে ১৪০০ জন ফিলিস্তিনি আর ২৭১ জন ইসরায়েলি নিহত হয়।২০০০ সালে দ্বিতীয় দফার ইন্তিফাদা শুরু হয়েছিল, যাতে মারা যায় ৩৩৯২ জন ফিলিস্তিনি আর ৯৯৬ জন ইসরায়েলি। মিশেলাইন বলছেন, আমার পরনে ছিল কালো স্কার্ট, হলুদ স্কার্ফ আর হলুদ স্যান্ডেল। তিনি একজন ফিলিস্তিনি খ্রিষ্টান।ওই ঘটনার দিন তিনি ছিলেন সেখানকার চার্চে। মিশেলাইন বলছেন, সে দিন আমার বিশেষ একটি ম্যাসের অনুষ্ঠান ছিল, তাই ও-রকম কালো পোশাক পরেছিলাম। সে দিন কোনো বিক্ষোভ হবে বলে ভাবিনি। কিন্তু আমি দেখতে পেলাম, ইসরায়েলি সেনাবাহিনী এসে তরুণদের সঙ্গে লড়াই শুরু করেছে। আমি সেই তরুণদের সঙ্গে তখনই যোগ দিলাম। তিনি স্মরণ করছেন। এক সময় আমি দৌড়াতে শুরু করেছিলাম। কিন্তু স্যান্ডেল পরে দৌড়াতে পারছিলাম না বলে সেগুলো খুলে হাতে নিলাম।তিনি বলছেন, একসময় নিচু হয়ে একটি পাথর ইসরায়েলিদের দিকে ছুড়ে মারলাম। কিন্তু আমি জানতাম না কেউ আমার ছবি তুলছে। মিশেলাইন আওডার বয়স এখন ৬৩। তিনি স্থানীয় একটি হোটেলে চাকরি করেন। তার দুই সন্তান রয়েছে, কিন্তু তিনি চান না, তারা আবার এ রকম কোনো সহিংসতায় জড়িয়ে পড়ুক। হলুদ স্যান্ডেল হাতে ছবিতে বিখ্যাত হলেও, এখন অবশ্য তার আর কোনো হলুদ রংয়ের স্যান্ডেল নেই।